1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৮:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নানা আয়োজনে পলিত হচ্ছে দৈনিক পত্রদূত সম্পাদক স.ম আলাউদ্দীন মৃত্যুবার্ষিকী সাতক্ষীরায় ২৪১ জনের মাঝে ১৭ লাখ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ কুমিল্লায় দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া ঈদ উপলক্ষে রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করলো মাহাবুবা মতলেব তালুকদার ফাউন্ডেশন ৷ ভোলায় ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মাঝে ১৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করল কোস্ট ফাউন্ডেশন মোংলায় দিন দুপুরে দোকান ঘর ভাংচুর ও জবর দখলের চেষ্টা বর্তমান সরকার অসহায় দুস্থদের সরকার-মেয়র শেখ আ: রহমান জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিকল্পনা আছে বটে, কিন্তু বাস্তবায়নে বাজেট নেই বাগেরহাটে কলেজ শিক্ষকদের বেসিক আইসিটি প্রশিক্ষণের সনদ প্রদান বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফকিরহাটের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানগণের শ্রদ্ধা নিবেদন

বন্দর ধামগড়ে আ.লীগ নেতা অহিদ ও আইয়ূব মেম্বার মাটি বিক্রি করে কোটি পতি ফসলি জমির মাটি ইটভাটায়, কৃষি উৎপাদন বিপর্যয়

যুগ্ম সম্পাদক
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২১ মে, ২০২৩
  • ৮৬ বার পঠিত
স্টাফ রিপোর্টার:
নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নে রাতের আঁধারে ফসলি জমির থেকে মাটি কেটে বিক্রি করে কোটি পতি বনে যায় আওয়ামীলীগ নেতা অহিদুজ্জামান অহিদ ও ধামগড় ইউপি ৭নং ওয়ার্ডের আইয়ূব মেম্বার। এতে করে আশেপাশের ফসলি জমিগুলো ধসে পড়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।
সরকারি গেজেটে প্রকাশিত মাটির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ ও হ্রাসকরণ ২০১৩ সালের ৫৯ নং আইনের ৫ ধারা অনুযায়ী কোন ব্যক্তি ইট প্রস্তত করার উদ্দেশ্যে কৃষি জমি হতে মাটি কাটা বা সংগ্রহ করে ইটের কাচাঁমাল হিসাবে ব্যবহার করতে পারবে না।
এদিকে ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার হওয়ায় স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ। ধামগড় ইউনিয়ন থেকে এর আগেও বহুবার মাটি না কাটার জন্য উপজেলায় মৌখিকভাবে অনুরোধ করা হলেও তার কোন প্রভাব পড়েনি সেখানে।
সরেজমিনে ওই এলাকায় দেখা যায়, ধামগড় ইউনিয়নের  মনারবাড়ী, মালামত, তুলাতলী, রানিজী,বুনিয়াদি, বালিগাঁ, আমৌর বটতলা, জাঙ্গাল, হালুয়া পাড়া, কামতাল সহ বেশ কয়েকটি গ্রামে সংঘবদ্ধ ভাবে জমি থেকে প্রাং ১০ ফুট গভীর করে মাটি কেটে নিচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতা অহিদুজ্জামান  স্থানীয় মেম্বার সহ এলাকার অসাধু ব্যবসায়ীরা। স্থানীয় লোকজন প্রথমদিকে কয়েকবার বাধা দিলেও প্রভাবশালীরা নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে মাটি কাটা চালিয়ে যাচ্ছে। দিনে না কাটলেও সরকারি অফিস ছুটি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিকেল থেকে শুরু হয়ে যায় মাটি কাটার মহোৎসব। বিশেষ করে রাতের আধারেই ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি করে ইটভাটায়। এসব মাটি পরিবহনে ব্যবহার করা হয় ড্রাম ট্রাক। এতে করে রাস্তা ঘাটেরও ব্যাপক ক্ষতি সাধন হচ্ছে।
মনারবাড়ী রানীজী এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিক নামে এক কৃষক বলেন, এই অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষের জীবিকা চলে কৃষি কাজ করে। প্রতিটি জমিতে বছরে দুই থেকে তিনটি ফসল হয়। এখানে আমার ২টি জমি আছে ১৫ শতাংশ করে ৩০ শতাংশ। আমি মাটি বিক্রি করবোনা বললেও জোর করে মাটি কেটে নেয় ভূমিদস্যু হাফেজ আইয়ূব মেম্বার ও আওয়ামী লীগ নেতা অহিদুজ্জামান।
কৃষি কাজই যার সম্বল এক ভুক্তভোগী খলিলুর রহমান বলেন, জম্মের পর থেকেই আমি আমার বাবাকে দেখি এই জমি চাষ করে আসতে আমরাও এই জমি আবাদ করছি এখন আমাদের ছেলেদের যোর করে মাটি কেটে নেয় তারা। মাটি নেওয়ার ফলে আমাগো এমপির দেওয়া ২ কিলোমিটার রাস্তাটির এখন বেহাল দশা যে কোন মূর্হতে ধসে পরতে পারে রাস্তাটি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ধামগড় ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড হাফেজ আইয়ূব মেম্বার বলেন, আমরা জমি কিনে মাটি নিয়ে আসি এটাও কি অপরাধ তাহলে আরো মানুষ যে দিনদুপুরে নেয়। আমরা তো এলাকাবাসীর সমস্যা হবে দেখে রাতে মাটি কেটে নেই।
আওয়ামীলীগ নেতা অহিদুজ্জামান অহিদ বলে আমরা মাটি আগে কেটেছি এখন আর মাটি কাটি না।
ধামগড় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কামাল হোসেন বলে ফসলি জমির মাটি বিক্রি করা অন্যায় এটা আমার জানা নেই তবুও আমি বিষয়টি জেনে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো।
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা