1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০২:১৭ অপরাহ্ন

গলাচিপায় অবৈধ ভেজাল বয়লার ফিড কারখানায় বিস্ফোরণে আহত-১

সহকারী সম্পাদক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
  • ৯৬ বার পঠিত

পটুয়াখালীঃ

পটুয়াখালীর গলাচিপায় অবৈধ ও ভেজাল বয়লার ফিড তৈরির মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস কারখানার সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ১ জন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার (১৩ সোমবার) বিকেলে সংবাদ পেয়ে গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস কারখানাটি অবৈধ ও ভেজাল খাবার তৈরি করা হয় কিনা পর্যালোচনা করা হবে। বৈধ কাগজপত্র না থাকলে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, আমি আজকেই শুনলাম। স্থানীয় কোন চেয়ারম্যান ও ইউপি জানাননি। আমি আগামীকাল যাবো, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রবিবার (১২ ফেব্রুয়ারী) বিকালে উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নে ৫ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব বাঁশবুনিয়া গ্রামে অবস্থিত মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস কারখানায় এ বিস্ফোরণ ঘটলে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।

আহত শ্রমিক মো. সুজন মৃধা (১৯) বাঁশবুনিয়া গ্রামের আশ্রাব মৃধার ছেলে এবং মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস কারখানার শ্রমিক।

জানা যায়, মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস্ এর শ্রমিক বয়লারের সিলিন্ডারের বাতাস প্রবাহের জন্য বিকাল ৫টার দিকে বয়লার সিলিন্ডার চালু করে। বয়লার সিলিন্ডার চালু করার সাথে সাথে মেশিনটিতে বিকট শব্দ হয়ে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে কারখানার দেয়াল ভেঙ্গে পড়ে এবং বয়লার কারখানার সিলিন্ডারটি ছিটকে গিয়ে বিদ্যুতের তারের সাথে সজোরে আঘাত লেগে পাশের বিলে গিয়ে পড়ে।

এ সময় কর্মরত শ্রমিক সুজন মৃধার শরীরে আগুণ লেগে শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা বিকট শব্দ ও আহত শ্রমিকের ডাক চিৎকার শুনে তাকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত সুজন মৃধার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শী ছিদ্দিক মৃধা, সাবেক ইউপি সদস্য শাহ আলম বলেন, আমরা বিকট শব্দ শুনে রাস্তায় এসে ফিড বয়লার কারখানার সিলিন্ডার বিস্ফোরণ সম্পর্কে জানতে পারি। এ সময় আমরা লোকজন নিয়ে আহত সুজন মৃধাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাই।

এ বিষয়ে আহত সুজন মৃধার বাবা আশ্রাব মৃধা বলেন, আমার ছেলে এই কারখানায় কাজ করে। আগে আমরা কখনো এ ধরণের দুর্ঘটনা দেখি নাই। আমার ছেলেটা পুড়ে গিয়েছে। তার শরীরের দিকে তাকানো যায় না। আমি গরিব মানুষ এখন ওর চিকিৎসা কীভাবে করব জানি না। কারখানা মালিক পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করলে আমার ছেলের এ অবস্থা হত না।

এ ব্যাপারে মেসার্স ইস্টার্ণ ইউরো ফিড মিলস কারখানার মালিক বশির হাওলাদার বিদেশে থাকায় কারখানার পরিচালনাকারী তারই ছোট ভাই কতিথ সাংবাদিক আব্দুল কাইয়ুম এর সাথে +8801710727377 নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা