1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৯:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নানা আয়োজনে পলিত হচ্ছে দৈনিক পত্রদূত সম্পাদক স.ম আলাউদ্দীন মৃত্যুবার্ষিকী সাতক্ষীরায় ২৪১ জনের মাঝে ১৭ লাখ টাকার অনুদানের চেক বিতরণ কুমিল্লায় দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া ঈদ উপলক্ষে রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করলো মাহাবুবা মতলেব তালুকদার ফাউন্ডেশন ৷ ভোলায় ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মাঝে ১৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করল কোস্ট ফাউন্ডেশন মোংলায় দিন দুপুরে দোকান ঘর ভাংচুর ও জবর দখলের চেষ্টা বর্তমান সরকার অসহায় দুস্থদের সরকার-মেয়র শেখ আ: রহমান জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিকল্পনা আছে বটে, কিন্তু বাস্তবায়নে বাজেট নেই বাগেরহাটে কলেজ শিক্ষকদের বেসিক আইসিটি প্রশিক্ষণের সনদ প্রদান বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফকিরহাটের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানগণের শ্রদ্ধা নিবেদন

বোরহানউদ্দিনে মানবাধিকার এর নামে অসহায় মানুষের সাথে প্রতারণা।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১১ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৩৯ বার পঠিত

মিলি সিকদারঃ

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দৌলতখান উদয়পুর রাস্তার মাথা ৩ নং ওয়ার্ডের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান ও বাস্তবায়ন সংস্থার নামে আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে স্হানীয় ভুক্তভোগীদের অভিযোগ।

আজ আসর বাদ স্হানীয় ভুক্তভোগীরা মানববন্ধন করেন মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান ও বাস্তবায়ন সংস্থার ভোলা জেলার সভাপতি আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে একাধিক অসহায় মানুষের উপকারের নামে আর্থিক লেনদেনর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন – পক্ষিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন সর্দার, তিনি মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বলেন – মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান সংস্থার আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে যেই অভিযোগ করেছেন, এই বিষয়ে ভুক্তভোগী অনেকেই অভিযোগ করেছেন, তবে আইন হাতে তুলে নেওয়া যাবেনা, আপনারা শান্ত থাকেন, প্রয়োজনে আমাদের নেতা আলহাজ্ব আলী আজম মুকুল এমপি মহোদয়কে এই বিষয় আবগত করা হবে। পাশাপাশি আইনের সহযোগিতা নিবো। সে যদি দোষী হয় তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী পারুল বেগম বলেন – ২৩-০৯-২০২২ তারিখে আনুমানিক রাত ৮ টার দিকে আমাকে বাড়ীতে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমার মেয়ে, আমার চিৎকার শুনে জোরে চিৎকার করে উঠলে আমিনুল ইসলাম দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে স্হানীয় লোকজন এলে পুরো ঘটনাটি তাদেরকে জানাই, তারা এই বিষয়টি নিয়ে আমিনুল ইসলাম এর সাথে কথা বলতে অনীহা প্রকাশ করেন। বিচার চেয়ে, বিচার না পাওয়ায় আদালতে গিয়ে আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করি। আমি কেন মামলা করলাম, এই জন্য আমার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করে। বিভিন্ন লোকজন দিয়ে আমার নাম্বারে কল দিয়ে মামলা উঠানোর জন্য হুমকি দিয়ে আসছে।

মামুন নামে এক ভুক্তভোগী জানান- পারুল বেগম এর সাথে জোসনার জমিজমা সংক্রান্ত একটি লেনদেন হয়, উভয় পক্ষের শালিস আমি ও আমিনুল ইসলাম ছিলেন। এর বাহিরে আমি কিছুই জানিনা,

আমিনুল ইসলাম আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট ৩ টি মামলা করেন। এইখানে আমার কি দোষ, আমি একজন শালিস হিসেবে উপস্থিত ছিলাম এই জন্যই কি আমার অপরাধ। যদি এই জন্য আমার অপরাধ হয় তাহলে প্রশাসনের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আমি দোষী হলে আইন আমাকে যে সাজা দিবে আমি মাথা পেতে নিবো।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় – মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান সংস্থার নামে সাইনবোর্ড ব্যবহার করে আমিনুল ইসলাম শালিস মিমাংসার নাম করে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে থাকে। কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বললে মানবাধিকার কর্মী বলে হুমকি দেন। এছাড়াও জ্বীন ব্যবসার সাথেও জড়িত বলে জানা যায়। আজ স্হানীয় লোকজন একজোট হয়ে আমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেন। তাদের দাবী আমিনুল ইসলামের শিক্ষাগত যোগ্যতা যাচাই-বাছাই করা হউক। সে পাইভ পাস কিনা এটাও সন্দেহ আছে। একজন অযগ্য লোক এমন একটি প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হয় কি ভাবে। তা খতিয়ে দেখা হউক।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা