1. admin@upokulbarta.news : admin :
রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু না হলে আমরা বাংলার ভূ-খণ্ড দেখতাম না-এমপি শাওন ধামগড় ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির ৯ নং ওয়ার্ড পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা শেখ হাসিনা ক্ষুধা ও দারিদ্র্মুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছেন- এমপি শাওন বরগুনা জেলার আমতলী থানা হতে র‌্যাবের হাতে ০১(এক)জন ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রেফতার। খুলনায় ‘উন্নয়নের সরণিতে পদ্মা সেতু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শিক্ষিত জাতি গঠনে শিক্ষক সমাজের দায়িত্ব সর্বাধিক। ৭৫’ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর খুনিরাই আবার ষড়যন্ত্রে নেমেছে- এমপি শাওন পটুয়াখালীতে সাংবাদিকের উপরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন। লালমোহনে লিজা নামের এক কিশোরী নববধূ আত্মহত্যা বোরাহানউদ্দীনে বাংলাদেশ ক্যারিয়ার অলিম্পিয়াডের ভোলা জেলা মিটিং সম্পন্ন।

অসময়ের বৃষ্টিতে আমনের ক্ষয়ক্ষতি,হতাশায় কৃষকরা

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৩ বার পঠিত

ভোলার বোরহানউদ্দিনে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে বৃষ্টি হওয়ায় আমন ধান ও শীতকালীন বিভিন্ন রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা ৷ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, কয়েকদিনের টানা অসময়ের বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে আমন ধানের ক্ষেত গুলো ৷ এবং মাটিতে নুয়ে পড়েছে অধিকাংশ আমন ধানের গাছ । নুয়ে পড়া গাছগুলোর নিচেই জমে আছে বৃষ্টির পানি ৷ যার ফলে ধানের ব্যাপক ক্ষতি হবে বলে জানান কৃষকরা ৷

এছাড়া শীতকালীন সবজির মধ্যে বাঁধাকপি, ফুলকপি, টমেটো, মুলা, বেগুন, কাঁচা মরিচ, লালশাক, ধনেপাতাসহ বিভিন্ন ধরনের রবি ফসলের ক্ষেতেও জমে আছে বৃষ্টির পানি ৷ বৃষ্টির পানি সরানো না গেলে ফসল নষ্ট হয়ে যাবে বলে জানান কৃষকরা। সাচড়া ইউনিয়নের বাথান বাড়ী গ্রামের কৃষক শাফিজল হক জানায়, আমি ৫ একর জমিতে আমান ধান চাষ করেছি ৷ বৃষ্টির কারনে পানিতে নুয়ে পড়েছে ৷ অনেক ধান গাছ থেকে ঝড়ে গেছে ৷ তিনি আরো জানান, বৃষ্টি শুরুর আগের দিন আমি ৪০ শতাংশ জমিতে আলুর বীজ ও ২৪ শতাংশ জমিতে সরিষার বীজ বপন করেছি বৃষ্টির কারনে তা নষ্ট হয়ে গেছে ৷

একই গ্রামের আমন চাষি ইউসুফ কাজি, দেউলা গ্রামের মফিজল, আলমগীর , ইউনুছ এবং বড় মানিকা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের কৃষক মালেক, এছহাক আলী ও রেশাদ আলী জানান, ধান ঘরে তোলার আগে এমন বৃষ্টি ও বাতাস হওয়ায় অনেক ধান ঝড়ে গেছে ৷ এবং পানিতে নুয়ে গেছে ৷ ফলন ভালো হলেও এখন অনেক ধান নষ্ট হয়ে গেছে ৷ তাই আমরা লোকসানের মুখে পরবো ৷

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র আরো জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে উপজেলার প্রায় ১৮ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যার মধ্যে ১৫ হাজার ৫ শত হেক্টর জমিতে উপশী এবং ২ হাজার ৯শত হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের আমন আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এছাড়া ব্রি ধান ৫২, ৭৬ বিনা ধান-১৭, ২০ এবং স্থানীয় কার্তিক সাইল, মধুমালতি, সাদা মোটা, সাদা চিকন, রাজাসাইল ধানের চাষ হয়েছে বলে জানান তারা ৷

বোরহানউদ্দিন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ওমর ফারক জানান, এবারের মৌসুমে আমন ধানের লক্ষ্যমাত্রা সম্পন্ন হয়েছে ৷ এবং ফলন অনেক ভালো হয়েছে ৷ তবে ধান ঘরে তোলার আগে ঝড় বৃষ্টিতে কিছু কিছু জায়গায় আমন ধান ও শীতকালীন রবি শস্যের ক্ষতি হয়েছে ৷ আমরা মাঠ পর্যায়ের কৃষকদের খোঁজখবর নিচ্ছি ৷

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা