1. admin@upokulbarta.news : admin :
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
তজুমদ্দিনে সাদিয়া সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের কম্বল বিতরণ চরফ‍্যাসনে মানুষের কাটা হাত উদ্ধার করেছে পুলিশ মেঘনায় মৎস্য অফিসের অভিযানে আটককৃত মালামাল বিক্রি করার অভিযোগ আ’লীগ সরকারী দল নয়, দলের সরকার হয়ে দেশ চালাচ্ছে বলেই এত উন্নয়ন; শিল্প মন্ত্রী মোহনপুরে রনি বাহিনী অস্ত্র ঠেকিয়ে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ মঠবাড়িয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির বনভোজন সম্পন্ন ভোলার শিবপুরে পূর্ব শত্রুতার জেদ ধরে প্রতিপক্ষকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ হাঁস পালন পদ্ধতি ফকিরহাট কাকডাঙ্গা ১২তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ কক্সবাজারে তানযীমুল উম্মাহর বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ভোলায় ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যুর অভিযোগ

সহকারী সম্পাদকঃ
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৫০ বার পঠিত

ভোলা প্রতিনিধিঃ

ভোলায় ডাঃ আফরোজার ভুল চিকিৎসায় বিবি আছিয়া (৩৫) নামে এক প্রসূতি মায়ের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ডায়াবেটিস হাসপাতালে প্রাইভেট ভাবে ডাক্তার দেখালে সে ডাক্তারের ভুল অপারেশনের কারণে ওই প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত আছিয়া ভোলা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের জেলে আঃ রহমানের স্ত্রী।

চিকিৎসকরের অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রোগীর স্বজনরা। তবে, চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রোববার (১১ ডিসেম্বর) রাত ৯ টায় প্রসূতি বিবি আছিয়া ভোলা সদরের ডায়বেটিস হাসপাতালে গাইনী চিকিৎসক ডাঃ আফরোজা বেগমকে দেখাতে গেলে তিনি প্রসূতি মাকে অস্ত্রপচারের পরামর্শ দেন।

এ সময় তাকে বিভিন্ন ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা করাতে বলেন। অপারেশনের পর একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। অপারেশন সম্পন্ন হলেও রাত থেকেই রোগী অসুস্থ হয়ে পড়ে। তবে সেই রোগীকে কোনো চিকিৎসা করেনি ডাক্তার বা হাসপাতালের কোন স্টাফ। সোমবার সকালে মুমূর্ষু অবস্থায় ওই রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালে রেফার করলে পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়।

রোগীর স্বামী আবদুর রহমান বলেন, সিজারের পর আমাদের কাউকে ভেতরে ঢুকতে দেয়নি। তারা রোগীর চিকিৎসায় অবহেলা করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। আবদুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, হাসপাতালেই রোগীর মৃত্যু হলেও তারা তা আমাদেরকে বুজতে না দিয়ে বরিশালে রেফার করেছে। রোগীর স্বজন জিন্নাহ বলেন, রোগীকে সরকারি হাসপাতালে সিজার করানোর অনুরোধ করলেও তারা ভোলা ডায়াবেটিস হাসপাতালে সিজার করায়। তারপর থেকে রোগীর খিঁচুনি উঠে রোগী অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। তাকে আইসিইউ লাগবে বলে বরিশালে রেফার করে। ডায়াবেটিস হাসপাতালের ওটি ইনচার্জ ইসমাইল হোসেন ও ম্যানেজার মাসুদুর রহমান বলেন, সিজারের পর সোমবার সকালে রোগী হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পরে তাকে জরুরি অক্সিজেন এবং আইসিইউতে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। কারণ ভোলাতে আইসিইউর সুবিধা নেই। আমাদের এখানে থাকা অবস্থায় রোগী সুস্থ ছিলো। সিজারের পর কোন সমস্যা ছিলো না।

অভিযোগ অস্বীকার করে গাইনি চিকিৎসক ডা. আফরোজা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, অপারেশন সফল ভাবেই সম্পন্ন হয়েছে। ভূল চিকিৎসা বা অবহেলায় তার মৃত্যু হয়নি। আমরা রোগীকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়েছি। তিনি আরও বলেন, রোগী কিছুটা বয়স্ক ছিলো। এটা তার পঞ্চম সন্তান। বয়স্ক মানুষের হার্ট অ্যাটাক ঝুঁকি থাকে। হয়ত সেকারনেই তার মৃত্যু হতে পারে। কারণ, শুনেছি রোগী বিছানার মধ্যেই মলত্যাগ করেছিলো।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা