1. admin@upokulbarta.news : admin :
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে ইভটিজিং বন্ধ করবেন সালেম হাওলাদার ভোলায় সাংবাদিক মহিউদ্দিনের উপর হামলায় গণমাধ্যমে নিন্দা-প্রতিবাদের ঝড় যৌতুকের দাবিতে পুত্রবধূকে মারধরের অভিযোগ শশুর শাশুড়ির বিরুদ্ধে মাছ শিকারে ২ মাসের নিষেধাজ্ঞা শুরু মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে গুরু -আঃ সামাদ ভোলার লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন শিক্ষার মানোন্নয়ন করতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ সেলিম নারীর গুণ – আঃ সামাদ দৌলতখানে যুব রেড ক্রিসেন্টে দলনেতা মাশরাফি উপ-নেতা ইমতিয়াজ ও রহিমা মোংলায় ৫ শতাধিক চক্ষু রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

লালমোহন বদরপুর ইউপি নির্বাচনে জাল টাকা বিতরণের অভিযোগ।

সালমা জাহান বুলু, লালমোহনঃ
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ১৮২ বার পঠিত

লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস) এর বিরুদ্ধে নির্বাচনি ওয়ার্ক করতে গিয়ে ভোটারদেরকে জাল টাকা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সকালে বদরপুর ইউনিয়নের রায়রাবাদ ৬ নং ওয়ার্ড সহ কয়েকটি ওয়ার্ডে এমন অভিযোগ উঠে। অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, বদরপুর ৬ নং ওয়ার্ডের জামালের বাড়িতে মোটর সাইকেল যোগে এক লোক এসে তার স্ত্রী জেছমিন বেগমকে বলে আমি আনারস প্রার্থীর কর্মী নির্বাচনি ওয়ার্কিংএ আসেছি একথা বলে আনারস মার্কায় ভোট চেয়ে প্রথমে এক হাজার টাকার একটি নোট ভাংতি চায় টাকা ভাংতি দিলে জামালের শিশু মেয়ের হাতে আনারস মার্কার কর্মী ৫ শত টকার একটি নোট দিয়ে আরো এক হাজার টাকার নোট ভাংতি চায় পরে জামালের স্ত্রী টাকা ভাংতি দিতে ঘরে থাকা গাড়ি বিক্রির ৫০ হাজার বান্ডিল হাতে নিয়ে টাকা ভাংতি দিতে গেলে জামালের স্ত্রীর হাত থেকে পুরো ৫০ হাজার টাকার বান্ডিলটি নিয়ে দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে মোটর সাইকেল দিয়ে চলে যায়।

পরে জামালের স্ত্রীর ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে ঘটনা শুনে জামালকে ফোনে জানালে জামাল গাড়ি নিয়ে ঐ ব্যক্তিকে ধাওয়া করতে থাকে একপর্যায়ে জামাল ঐ ব্যক্তির কাছাকাছি গিয়ে ধরতে থাবা দিলে ঐ ব্যক্তি মোটর সাইকেল রেখে দৌড়ে বাগানের মধ্যেদিয়ে পালিয়ে যায়। পরে অনেক খোজাখুজি করে আর তাকে পাওয়া যায়নি বলে জানান জামালের স্ত্রী মোসাঃ জেছমিন। তিনি আরো জানান,তার হাতে ঐ ব্যক্তি ভাংতির জন্য এক হাজার টাকার নোট দেওয়ার পর কেমন যেন দেওলিয়ার মত হয়ে যান তিনি পরে বুঝতে পারেন ঐ টাকার সাথে নেশা জাতীয় কিছু মেশানো ছিলো বলে জানান তিনি।

এছাড়া এলাকার আরো কয়েক জনের কাছ আনারসের ভোট চাইতে গিয়ে একই ভাবে জাল নোট দিয়ে ভাংতি টাকা নিয়ে প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। পরে জামাল সহ আরো কয়েকজন জাল নোট বহনকারী ব্যক্তির মোটর সাইকেল জনতা বাজার আনে।পরে লালমোহন থানা পুলিশ এস আই মামুদুল হাসান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে জনতা বাজার থেকে মোটরসাইকেল উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। এঘটনায় বদরপুর ইউনিয়নের আনারস মার্কা স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদ মেলকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার এলাকায় জনপ্রিয়তা দেখে আন্যান্য প্রার্থীরা আমার সম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য নিজেরাই কৌশল অবলম্বন করে অহেতুক বদনাম ছড়ানোর চেষ্টা চালাইতেছে।

এঘটনায় লালমোহন থানার এস আই মাহামুদুল হাসানের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান আমরা শুক্রবার সকালে এরকম একটি ঘটনা শুনতে পেয়ে জনতা বাজারে গিয়ে জনতার হাতে একটি ডিসকাভার ১০০ সিসি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।মোটরসাইকেলের মালিক পেলে বিস্তারিত ঘটনা জেনে যে দোষী হয় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা