1. admin@upokulbarta.news : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মোংলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা কালীপদ রায়কে গার্ড অব অনার বন্দরে স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত মনপুরায় ‘মিডওয়াইফ পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবা’ প্রকল্পের সমাপনী ও লার্নিং শেয়ারিং কর্মশালা সিদ্ধিরগঞ্জে তাঁতখানা এ্যাথলেটিক্স ক্লাবের উদ্যোগে, শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সিজন (১) ২০২৪ উদ্বোধন হয়েছে বাইউস্ট ট্রাস মাস্টার অনুষ্ঠিত পথ হারিয়ে ৯৯৯ এ ফোন, ৩১ পর্যটককে উদ্ধার করল পুলিশ আজ পবিত্র শবেবরাত শবে বরাতের আমল ও ফজিলত পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সাধারণ মানুষের পাশে থাকার প্রত্যয় সালাম হাওলাদারের পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন উঠান বৈঠক নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন যুব নেতা শাকিল

দৌলতখানের শিশু রনির চিকিৎসার দায়িত্বভার নিলেন অধ্যাপক ডা: রাজ।

মোঃ আওলাদ হোসেন
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২২
  • ১৭৬ বার পঠিত

 দৌলতখান (ভোলা) প্রতিনিধি:

দৌলতখান উপজেলার রাধাবল্লভ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র মোঃ রনি (৬) অটোরিক্সা চাপায় গুরুতর আহত হয়। দিনমজুর বাবা পক্ষে ছেলের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব হয়ে উঠেনি। গত ১৫দিন যাবৎ শিশু মোঃ রনি বিনা চিকিৎসায় প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে ঘরে পড়ে চিৎকার করতে থাকে। অবুঝ সন্তানের অসহ্য ব্যথা আর কষ্ট সইতে না পেরে রনির বাবা মোঃ বিল্লাল হোসেন সাংবাদিক ও বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন। পরে সোস্যাল মিডিয়ায় ঘটনাটি উল্লেখ করে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অসহায় বাবার আর্তনাদ ও ছেলের চিকিৎসার খরচ যোগাতে সমাজের বিত্তবান মানুষের সাহায্য কামনা করেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও সাংবাদিকদের তথ্যে পাওয়া দৌলতখানে অসুস্থ শিশু রনির চিকিৎসার দায়িত্বভার নিলেন স্কয়ার হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট অধ্যাপক ডা: আফতাব ইউসুফ রাজ। গত সপ্তাহ রনি কে তার বাবা-মায়ের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। খবর পেয়ে ডা: রাজ বিডিএফের নের্তৃবৃন্দ কে নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছুটে যান। ডা: রাজের এমন সহযোগিতাকে মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বলে দৌলতখানের সর্বস্তরের মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছে। জানা গেছে, গত ১৫ জানুয়ারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ‘মানবিক সহযোগিতার আবেদন’ শিরোনামে একটি পোস্ট দেয়া হলে বিষয়টি নজরে আসে ডা: রাজের। পরে তিনি রবিবার সন্ধ্যায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে শিশু রনির চিকিৎসার দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। রনির বাবা মোঃ বিল্লাল হোসেন উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। তিনি দুই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে পৌরসভা ২নম্বর ওয়ার্ডে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করেন। পেশায় সে একজন দিনমজুর।

অসুস্থ রনির মা জানান, আমার ছেলে এক্সিডেন্ট হওয়ার পরে আমি হতাশায় ছিলাম চিকিৎসা করতে পারবো কি পারবো না। পরে যখন শুনেছি ডা: রাজ আমার ছেলের চিকিৎসার সকল ব্যয়ভার গ্রহণ করবেন তখন আমার মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। আমি ডা: রাজের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া কামনা করি। পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র জাকির হোসেন বাবুল জানান,অটোরিক্সায় এক্সিডেন্ট হয়ে গেলে রনির পরিবারে নেমে চরম হতাশা। আমরা স্থানীয়ভাবে এলাকা থেকে চাঁদা কালেকশন করে রনির প্রাথমিক চিকিৎসা করেছি। পরে অবস্থা আশংকাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়। তিনি আরো বলেন,ডা: রাজ শিশুটির চিকিৎসার দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। এটা শুনে আমরা এলাকাবাসী সত্যিই আনন্দিত।

ডা: রাজের সহযোগিতায় দ্রুতই তার অপারেশন করা হবে বলে আমরা জেনেছি। আমরা এলাকাবাসী ডা: রাজের এমন মানবিক কাজের জন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অধ্যাপক ডাঃ আফতাব ইউসুফ রাজ জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শিশু রনির জন্য মানবিক আবেদনের পোস্টটি দেখতে পাই। পরে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে শিশুটিকে দেখতে যাই এবং মানবিকতার টানে তার চিকিৎসার সব দায়-দায়িত্বভার গ্রহণ করি। পরিবারটি খুবই দরিদ্র ও অসহায়। মানবিক দিক বিবেচনা করে আমি তার পাশে দাড়িয়েছে। রনি সুস্থ হলে পরিবারে স্বস্তি নেমে আসবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা