1. admin@upokulbarta.news : admin :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মেঘনা নদীতে কর্ণফুলী-৩ লঞ্চে আগুন, আতঙ্কিত যাত্রীরা ভোলায় পুকুরে ডুবে ভাই-বোনের মৃত্যু ফকিরহাটের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে স্বপন দাশের প্রচার শুরু চরফ্যাশনে ভিকটিমকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান এর বিরুদ্ধে আদালতের আদেশ মানতে গড়িমসি করছেন খুলনা বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা পরিচালক রবিউল আলম বাইউস্টে নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত Sustainability with Profitability is Possible-Rezaul Karim Chowdhury লালমোহনে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারপিট আহত ১ ২০২৪-২৫ বাজেটে সব ধরনের তামাকপণ্যের কর ও মূল্য বৃদ্ধির দাবিতে বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন মোহনপুরে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলার উদ্বোধন

ভোলায় ১৬৫ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলো ৪৫ তরুণ-তরুণী

ডেক্স রির্পোট
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৪ মার্চ, ২০২৪
  • ১২ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘সেবার ব্রতে চাকরি’ এই স্লোগানে ভোলা জেলায় নিয়োগ যোগ্য শূণ্য পদে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি অনুসরণ করে শতভাগ মেধা যোগ্যতা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োাগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পুলিশের চাকরি পেয়েছেন ৪৫ জন তরুণ-তরুণী। এই চাকরি পেতে তাদের জনপ্রতি খরচ হয়েছে মাত্র ১৬৫ টাকা।
শনিবার (২৩ মার্চ) রাতে ভোলা পুলিশ লাইনে নতুন চাকরি পাওয়ায় এই তরুণ-তরুণীদের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করেন ভোলা পুলিশ সুপার মো. মাহিদুজ্জামান (বিপিএম)। এতে ৪২ জন ছেলে এবং ৩ জন মেয়ে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এ সময় নব্য পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারবর্গকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন জেলা পুলিশ। কোনো প্রকার হয়রানি, সুপারিশ এবং ঘুষ ছাড়া পুলিশের গর্বিত সদস্য হতে পেরে খুশিতে আত্মহারা হত দারিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারে এসব তরুণ-তরুণী।
দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় জানুয়ারি ২০২৪ এর ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের মাধ্যমে তাদের নির্বাচিত করা হয়। এ সময় এক আনন্দঘন মুহূর্ত দেখা গেছে পুলিশ লাইনে। নিজ যোগ্যতায় ও মেধায় চাকরির ফলাফল পাওয়া মাত্রই ৪৫ জন তরুণ-তরুণী আনন্দে বিমোহিত হয়। এ সময় পুলিশের ড্রিল শেড মুহর্তের মধ্যে পরিণত হয় আনন্দ ও কান্নার মিলনমেলায়। অনেকের নাম ঘোষণার পরপরই দুই নয়ন অশ্রুতে ভিজে যায়। অনেকেই চাকরি পেয়ে আনন্দ উল্লাস করেন।
ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মো. মাহিদুজ্জামান (বিপিএম) বলেন, নিজের যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে চাকরি পেল ৪৫ জন তরুণ-তরুণী। যারা নিয়োাগ পেয়েছেন তারা সবাই নিজেদের যোগ্যতায় ও মেধায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এতে তাদের কোনো যোগাযোগ, লবিং ও ঘুষ বিনিময় করতে হয়নি। তাদের মাত্র খরচ হয়েছে ১৬৫ টাকা, সেটিই তাদের খরচ। আশা করছি যারা পরীক্ষা উত্তীর্ণ হয়ে বাংলাদেশ পুলিশের নতুন সদস্য হলেন তারা সবাই দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করবে। তাদের জন্য রইল অনেক শুভকামনা।
ভোলা জেলার ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল ৪৫ জনের শূন্য পদের বিপরীতে আবেদন করেছেন ২০২৫ জন। প্রিলিমিনারি স্ক্রিনিং শেষে ৪৮৮ জন প্রার্থী শারীরিক মাপ, শারীরিক সক্ষমতা যাচাই পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পান। শারীরিক মাপ, শারীরিক সক্ষমতা যাচাই পরীক্ষা শেষে ৪৮৩ জন লিখিত পরীক্ষা অংশগ্রহণ করেন এবং লিখিত পরীক্ষায় ১০২ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয় মৌখিক (ভাইভা) পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। তার মধ্যে চূড়ান্তভাবে ৪৫ জনকে (৪২ জন ছেলে ও ৩ জন মেয়ে) মনোনীত করে ভোলা জেলা টিআরসি-২০২৪ নিয়োগ বোর্ড। এতে অপেক্ষমাণ রাখা হয় আরও ৫ জন ছেলে। ৪৫ জনের মধ্যে সাধারণ কোটা ৩৪ জন, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৪ জন, পুলিশ পোষ্য কোটায় ৪ জন নিয়োগ পেয়েছেন। নারী সাধারণ কোটায় ৩ জন নিয়োগ পেয়েছেন।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা