1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভোলার লালমোহনে পুলিশকে মারধরের ঘটনায় মামলা, আটক-৩ ভোলায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৩ উপজেলা নির্বাচন ধলীগৌরনগর ইউপি নির্বাচনে মঞ্চ লুঙ্গী পড়া মানুষের জন্য বিশাল পথসভায় নেহাল পাটোয়ারী ভাইস চেয়ারম্যান থেকে চেয়ারম্যান হলেন ইউনুস, ভোলার ৩ উপজেলায় নির্বাচন সাতক্ষীরার ইছামতি নদীতে ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার! রাজশাহীতে পুষ্টি বিষয়ক মাল্টি সেক্টরাল সমন্বিত কর্মশালা অনুষ্ঠিত রামপালে মেধাবী অন্বেষণ কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত রামপালে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবক যুবতীর আত্মহত্যা ধলীগৌরনগর ইউপি নির্বাচন- সুখেদুঃখে মানুষের পাশে থাকবেন সংরক্ষীত সদস্য প্রার্থী নাসিমা লালমোহন উপজেলা নির্বাচন২৪ নির্বাচিত হলে বদরপুরে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন করবো-প্রার্থী আকতার হোসেন

পাকিস্তানের কারাগারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে চেয়েছিল: এমপি শাওন

সম্পাদকঃ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারি, ২০২২
  • ২৩৪ বার পঠিত

পারভীন আক্তার, লালমোহনঃ

ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন বলেছেন, পাকিস্তানের করচির কারাগারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে চেয়েছিল। কারাগারে পাশে কবর করা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুকে বলা হয়েছিল আপনার বাঙালিদের যুদ্ধ বন্ধ করান, আপনি প্রোয়জনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী পদ নিয়ে যান। কিন্তু তিনি বলেছিলেন, আমার মৃত্যুর পর আমার লাশ বাঙালির কাছে পাঠিয়ে দিও। তিনি মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে থেকেও কোনো রকম আপস করেননি।

এমপি শাওন বলেন, ১৬ ডিসেম্বর যখন আমরা বিজয়ের আনন্দে মুখরিত তখনও বঙ্গবন্ধু কারাগরে। ৮ জানুয়ারী বঙ্গবন্ধু করাচির কারাগার থেকে মুক্ত হলেন। তিনি দেশে এসে প্রথমে বললেন আমার বাঙালি আজ স্বাধীন। আমার সকল সাধনা পূর্ণ হলো। ১১ জানুয়ারি সকাল ১০টায় লালমোহনে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশে প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিতি ছিলেন এমপি শাওন। এসময় তিনি এসব কথা বলেন। এমপি শাওন বলেন, ১৯৫৭ সালে মীর জাফরের কারণে সিরাজুদ্দৌলাকে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়েছিল। তেমনই ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট সেই বেঈমানের প্রেতাত্মা কর্নেল ফারুক, মোশতাক, মাজেদ গংরা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারের হত্যা করেছিল।

ছোট্ট শিশু শেখ রাসেল ঘাতকদেরকে বলেছিল আমি আমার মায়ের কাছে যাবো। তখনও ঘাতকদের একটু দয়া হয়নি। শেখ রাসেলকে পেছন থেকে গুলি করে হত্যা করেছিল। তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে এখানকার স্থানীয় এমপি মেজর হাফিজ লালোহন তজুমদ্দিনে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। বিএনপি আমলে বাংলা ভাইরা মানুষকে মেরে গাছের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছিল। ৬৪ জেলায় সিরিজ বোমা ফাটিয়েছিল তারা। এমপি শাওন জানান, শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় আছে বলেই আমরা এত উন্নতি করতে পেরেছি। এখন চরাঞ্চলের মানুষ বিদ্যুৎ পেয়েছে। মেঘনা নদী আমাদের অনেক মানুষের স্বপ্ন বিচূর্ণ করে দিয়েছে। মেঘনা যখন নিয়ে যায় তখন বাড়ি ঘর জায়গা জমি সব নিয়ে যায়। মাথা গোঁজার ঠাঁই থাকে না। মেজর হাফিজ এ লালমোহন তজুমদ্দিনের ২৩ বছর এমপি ছিলেন।

তিনি সেসময় পানিসম্পদ মন্ত্রী থেকে ভোলা তো দূরের কথা লালমোহন তজুমদ্দিনে মেঘনার ভাঙ্গনে কোনো ব্লক বা বেড়িবাঁধের একটু কাজও করেনি। আমরা প্রায় ১৯ মিঃ মিটার বেড়ি ও ব্লকের কাজ করেছি। মঙ্গল সিকদার, লর্ডহার্ডিঞ্জ এলাকায় জমির কোন মূল্য ছিল না এখন জমির দাম অনেক হয়েছে। লালমোহনে আয়োজিত সমাবেশে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, সব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং পৌর কাউন্সিলরসহ সব ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা