1. admin@upokulbarta.news : admin :
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১১:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভেদুরিয়া চরকালী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফান্ডের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে ভেদুরিয়ায় নবগঠিত ইউনিয়ন কমিটির আনন্দ মিছিলে দুষ্কৃতিকারীদের অতর্কিত হামলার অভিযোগ লালমোহনে স্বামী কর্তৃক স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ আরডিএ’র নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে ২শ ৬ কোটি টাকার কাজে অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুস্থ স্বাস্থ্যের জনশক্তি হিসেবে গড়ে তুলতে হবে সিদ্ধিরগঞ্জ,চৌধুরী বাড়ী বাইতুল মা’মুর জামে মসজিদের পুনঃনির্মান ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন মোহনপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী ও মহান বিজয় দিবস উদযাপনে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত পটুয়াখালীতে স্কুল ঝড়ে পড়া ১৭ হাজার শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু জেলে পরিবারের নারীদের অধিকার আদায়ে ভোলায় নেটওয়ার্কিং প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত রাস্তা কেটে বরযাত্রীকে আটকে দেওয়া আলোচিত সেই মেম্বার এর নেতৃত্বে জমি দখলের অভিযোগ, সংঘর্ষ, আহত-১

ডুবে যাওয়া লাইটার মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে বন্দর কর্তৃপক্ষ!

সহকারী সম্পাদকঃ
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৫ বার পঠিত

মোঃ আবুরায়হান ইসলামঃ

মোংলায় ডুবে যাওয়া লাইটার জাহাজ এমভি মাস্টার দিদার-১ এর সার্ভে সনদ মেয়াদোত্তীর্ণ ও ফিটনেসবিহীন থাকায় জাহাজটির মালিক মোঃ দেলোয়ার হোসেনসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের উপসচিব মোঃ মাকরুজ্জামান।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দিবাগত রাত সোয়া ১২টায় ৬০০ টন পাথর নিয়ে নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্য ছেড়ে আসে লাইটার জাহাজ ‘এম ভি মাষ্টার দিদার’-১। পথিমধ্যে পশুর নদীর হারবাড়িয়া এলাকায় অন্য একটি লাইটারেজ জাহাজের সাথে ধাক্কা লেগে তলাফেটে ডুবে যায় লাইটার জাহাজটি।

ডুবে যাওয়া ‘এম ভি মাষ্টার দিদার’ নামে জাহাজটির সার্ভে সনদ মেয়াদোত্তীর্ণ ও ফিটনেসবিহীন ছিল বলে জানিয়েছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ শাহীন মজিদ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়, পাথর নিয়ে ডুবে যাওয়া মাষ্টার দিদার-১ জাহাজটির সার্ভে সনদ গত ১ জানুয়ারি ২০২১ সালে উত্তির্ণ হয়ে যায়। এবং জাহাজটি সম্পূর্ন অবৈধ ভাবে বানিজ্যিক জাহাজ হতে পণ্য খালাস করে আসছিলো। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার ক্যাপটেন মোঃ শানিহ মজিদ ঘটনাস্থল সরজমিনে পরিদর্শন করেছেন এবং নিরাপদে জাহাজ চলাচলের জন্য একটি বিশেষ বয়া স্থাপন করেন। বর্তমানে বন্দরের মূল চ্যানেল নিরাপদ রয়েছে বানিজ্যিক জাহাজ চলাচলে কোন সমস্যা নেই বলেও জানানো হয়।

ডুবে যাওয়া কার্গোজাহাজটি উদ্ধারের জন্য স্যালভেজের কার্যক্রম চলোমান রয়েছে। অতিদ্রুত জাহাজটিকে চ্যানেল থেকে অপসারন করা হবে। এবং ফিটনেস বিহীন কার্গোজাহাজ পশুর নদীতে চালানোর জন্য মালিক মোঃ দেলেয়ার হোসেন, আনিছুর রহমান এবং জিয়াউর রহামানের বিরুদ্ধে আইনানুগ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা