1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:২৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দেশ ও জাতির কল্যাণে দোয়া ঈদ উপলক্ষে রেমালে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করলো মাহাবুবা মতলেব তালুকদার ফাউন্ডেশন ৷ ভোলায় ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মাঝে ১৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করল কোস্ট ফাউন্ডেশন বর্তমান সরকার অসহায় দুস্থদের সরকার-মেয়র শেখ আ: রহমান জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিকল্পনা আছে বটে, কিন্তু বাস্তবায়নে বাজেট নেই বাগেরহাটে কলেজ শিক্ষকদের বেসিক আইসিটি প্রশিক্ষণের সনদ প্রদান বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফকিরহাটের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানগণের শ্রদ্ধা নিবেদন সাতক্ষীরায় নাগরিক সংলাপ জলবায়ু সংকটে নিপতিত সাতক্ষীরায় বাসযোগ্য ও পরিকল্পিত নগর গড়ে তোলার আহবান মানারাতুল উম্মাহ মডেল মাদরাসার অভিভাবক সমাবেশ ও সবক অনুষ্ঠান মোহনপুরে পিজি সদস্যদের পোল্ট্রি খাদ্য ও উপকরন বিতরণ

ভোলা জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক আলামিনের জামিন না-মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ

সহকারী সম্পাদক
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ১০৬ বার পঠিত

আশিকুর রহমান শান্তঃ
ভোলা জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক খন্দকার আল-আমিন এর জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরন করেছে আলাদত। পুলিশ এসল্ট মামলায় (জি,আর-৪৭৫) তাকে কারাগারে প্রেরণ করে আদালত।

রবিবার (১৬ অক্টোবর) ভোলার অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে এ মামলা জামিন চায় সে। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো: তারিক হোসেন মামলার আসামি খন্দকার আল-আমিনের জামিন না-মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এসময় উপস্থিত বিএনপির অন্যসব নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃস্টি হয়।

কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন মামলার আসামি পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট আমিনুল ইসলাম বাছেদ। তিনি বলেন, ভোলা জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আল-আমিন রোববার সকালে ভোলার অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো: তারিক হোসেন খন্দকার আল-আমিনের জামিন না-মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই ভোলা সদর উপজেলার মহাজনপট্টিতে অবস্থিত ভোলা জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে দেশজুড়ে বিদ্যুতের চরম লোডশেডি ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে আনার দাবিতে বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়। ওই বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় গুলিতে ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলম ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম নিহত হন। এ ছাড়াও সংঘর্ষে বিএনপির অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী গুরুতর আহত হন‌।

ভোলা সদর মডেল থানার ওসি শাহীন ফকির জানান, ও ওই দিনের সংঘর্ষের পর পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ এনে পুলিশ বাদি হয়ে ভোলা জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আল-আমিনসহ বিএনপির ৪শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার আসামি খন্দকার আল-আমিনকে রোববার ভোলার আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা