1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে সাংবাদিকের উপরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন। লালমোহনে লিজা নামের এক কিশোরী নববধূ আত্মহত্যা বোরাহানউদ্দীনে বাংলাদেশ ক্যারিয়ার অলিম্পিয়াডের ভোলা জেলা মিটিং সম্পন্ন। আবহাওয়া পরিবর্তনে পিছিয়েছে আমন ধানের চাষ, ক্ষতির শঙ্কায় চরফ্যাসনের কৃষকরা চরফ্যাসনের গোলদার হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কোভিড-১৯ টিকা নিন সুরক্ষিত থাকুন বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠিত ❝টাকা তোমার ঠিকই, কিন্তু সম্পদ সমাজের❞ মঠবাড়িয়ায় পরকিয়ার বলী হয়ে স্ত্রী কে খুন,স্বামী ও স্কুল শিক্ষিকা গ্রেফতার দেশে ফিরেই ঢাকায় হাসপাতালে অসুস্থ রোগীদেরকে দেখতে গেলেন এমপি শাওন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে শিশুর সহায়ক যেসব খাবার লাল শাক রক্তশূন্যতা কমায়

উত্তরা ব্যাংক পটুয়াখালী শাখার প্রতারণায় নিঃস্ব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রফিক

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০২২
  • ৬০০ বার পঠিত

গোপাল হালদার, পটুয়াখালীঃ

পটুয়াখালী উত্তরা ব্যাংকের ম্যানেজার মেজবাহ উজ জাকিরের প্রতারণা ও দায়িত্ব অবহেলায় নিঃস্ব হয়েছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম। মামলার ভয়ে লোনের লভ্যাংশসহ ৩৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জমা দিয়েও শেষ রেহাই হয়নি তার। গ্রাহক হয়রানি ও প্রতারণার দায়ে উত্তরা ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ভুক্তভোগীর পক্ষে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন স্থানীয় আইনজীবী আব্দুল্লাহ আল নোমান। পটুয়াখালী উত্তরা ব্যাংকের ম্যানেজারের মেজবাহ উজ জাকির প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী টাকা জমা দিয়েও শেষমেশ ব্যাংকের মামলায় একবছরে দন্ড ও ৩৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জরিমানা হয় গ্রাহক রফিকুলের। এখন সব কিছু হারিয়ে ও হাজতের ভয়ে অসহায় ও যাযাবর জীবন যাপন করছেন তিনি।

২০১৭ সালের ১৮ জুন উত্তরা ব্যাংক পটুয়াখালী শাখা হতে পৌরসভার চকবাজার এলাকার বানিজ্য মেলা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নামে ৪০ লক্ষ টাকা ঋণ গ্রহণ করেন রফিকুল ইসলাম। ব্যবসা মন্দা ও ঘর মালিকের সাথে চুক্তি জটিলতায় ব্যাপক লোকসানে পরে রফিকুল। পরে সম্পূর্ণ ঋণ পরিশোধ করতে না পেরে ২০১৮ সালের ২৪ জুলাই নবায়ন করে। এসময় ব্যাংক তার কাছ থেকে ব্লাঙ্ক চেক গ্রহণ করে। পরবর্তীতে করোনা চলে আসায় আর ঘুরে দাড়াতে পারেনি রফিকুল।

ঋণ পরিশোধ বিলম্ব হওয়ায় ব্যাংকের ম্যানেজার সাজিদ হোসেন নিজ হাতে ৩৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা বসিয়ে চেক ডিসওর্নার দেখিয়ে আইনি নোটিশ পাঠায় রফিকুলকে। এরমধ্যে ভয়ে ঘাবড়ে গিয়ে ব্যাংকের ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করে রফিকুল। তিনি টাকা পরিশোধের পরামর্শ দেন। রফিক তার স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি ও ধারদেনা করতে শুরু করে।

এদিকে হঠাৎ করেই ২০২০ সালের ৭ জুন পটুয়াখালী বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রফিকুলের বিরুদ্ধে নেগোশিয়েবল ইনস্ট্রুমেন্ট (এনআই) অ্যাক্টের ১৩৮ ধারার অধীনে মামলা দায়ের করে উত্তরা ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজার সাজিদ হোসেন। এরমধ্যে রফিকুল চলতি বছরের জুনের সাত তারিখের মধ্যে দফায় দফায় উত্তরা ব্যাংকে ৩৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জমা করেন এবং ব্যাংকের বর্তমান ম্যানেজার মেজবাহ উজ জাকি তার নামে প্রত্যয়ন পত্র ইস্যু করেন।

এদিকে আদালত জুনের ২৭ তারিখ মামলার রায়ের দিন ধার্য করলে, উক্ত তারিখে মামলার বাদী পক্ষ টাকা বুঝিয়া পাইছি বা এমর্মে কোন কাগজপত্র দাখিল করেনি এবং হাজিরাও দেইনি। পরে আদালত রফিকুলের বিরুদ্ধে একবছরে কারাদন্ড ও ৩৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা অর্থ দন্ডের নির্দেশ দেন। এবিষয়ে মামলার বিবাদী রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি এখন কি করবো, যা ছিলো সব বিক্রি করে ব্যাংকের টাকা দিছি। এহন আবার সেই টাকা দ্বিতীয়বার জরিমানা হলো, তাহলে এত কষ্ট করে কি লাভ হলো। আমার মরে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় নেই। ম্যানেজার আমাকে টাকা দিতে বলছে, আমি ধারদেনা করে টাকা দিছি। আমার এই অশান্তি বা শাস্তি কেন? আমি কি ব্যাংকে টাকা নিয়ে তাদের লাভ দেইনি।

তাহলে একজন গ্রাহককে কেন এত হয়রানি, কেত এত নির্যাতন? এবিষয়ে উত্তরা ব্যাংকের পটুয়াখালী শাখায় যোগাযোগ করলে ব্যাংকের বর্তমান ম্যানেজার মেজবাহ উজ জাকিকে পাওয়া যায়নি, তিনি চিকিৎসা জনিত ছুটিতে আছেন বলে জানান বর্তমানে দায়িত্ব প্রাপ্ত দ্বিতীয় ম্যানেজার হাসান। তিনি এঘটনার বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি। পরে বরিশাল জোনাল ম্যানেজার শাহ আলমের সাথে একাধিক যোগাযোগ করা হয়। তিনি এবিষয়ে কিছু জানেননা এবং ব্যাকের আইনজীবীর সাথে কথা না বলে কিছু বলতে পারবেননা বলে জানান। এদিকে প্রতারণা ও হয়রানির শিকার হয়ে পটুয়াখালী উত্তরা ব্যাংকের বর্তমান ম্যানেজারকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলাম।

পটুয়াখালী জজ কোর্টের বিজ্ঞ আইনজীবী মোঃ আব্দুল্লাহনআল নোমান। ব্যাংকের ম্যানেজারকে নোটিশ প্রাপ্তির একদিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। তবে একদিনের মধ্যে জবাব দিতে ব্যর্থ হলে উত্তরা ব্যাংক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গ্রাহকের সাথে বিশ্বাস ভঙ্গ, প্রতারণা, হয়রানি এবং ক্ষতির দায়ে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান এই আইনজীবি। এছাড়াও উত্তরা ব্যাংকের বিরুদ্ধে স্থানীয় ভাবে ঋণ সংক্রান্ত নানান অভিযোগ রয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা