1. admin@upokulbarta.news : admin :
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শেখ হাসিনা’র জন্য ঘষিয়াখালী ক্যানেল সুন্দরভাবে চলছে- সিটি মেয়র আ. খালেক দুর্নীতি করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না- মেয়র শেখ আ. রহমান ভোলায় রওশন আরা ও রাব্বী হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি মোংলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা কালীপদ রায়কে গার্ড অব অনার বন্দরে স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত মনপুরায় ‘মিডওয়াইফ পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবা’ প্রকল্পের সমাপনী ও লার্নিং শেয়ারিং কর্মশালা সিদ্ধিরগঞ্জে তাঁতখানা এ্যাথলেটিক্স ক্লাবের উদ্যোগে, শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সিজন (১) ২০২৪ উদ্বোধন হয়েছে বাইউস্ট ট্রাস মাস্টার অনুষ্ঠিত পথ হারিয়ে ৯৯৯ এ ফোন, ৩১ পর্যটককে উদ্ধার করল পুলিশ আজ পবিত্র শবেবরাত

তুলাতুলি-মদনপুর খেয়া পারাপারে চেয়ারম্যানের চাঁদা দাবী: ইজারাদারের সংবাদ সম্মেলন

সহকারী সম্পাদক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৫৫ বার পঠিত

ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের তুলাতুলি ও দৌলতখান উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের সাথে সংযোগকারী, খেয়া পারাপারের জন্য মদনপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এ.কে.এম নাছির উদ্দিন নান্নু মোটা অংকের চাঁদা দাবির অভিযোগ করেন। চাঁদা দাবির প্রতিবাদ করে সংবাদ সম্মেলন করেন উক্ত ঘাটের ইজারাদার।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে স্থানীয় একটি পত্রিকা অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী ইজারাদার অভিযোগ করে বলেন, আমরা অতি নিরুপায় হইয়া আপনাদের কার্যালয়ে হাজির হইয়া এই মর্মে সংবাদ সম্মেলন করছি। আমরা ধনিয়া তুলাতলি থেকে মদনপুর পাটোয়ারী বাজার রাস্তার মাথায় খেয়া পারাপারের ইজারাদার। ২০২১ইং সাল থেকে ভোলা জেলা প্রশাসক এর নিকট থেকে উল্লেখিত খেয়াঘাটটি ইজারা নিয়ে যাত্রী পারাপার করে আসছি। বর্তমান মদনপুর রাস্তার মাথা থেকে খেয়া পারাপারের জন্য যাত্রী আসার রাস্তায় গাছ ফেলে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ.কে.এম নাছির উদ্দিন নান্নু ও তার লালিত ক্যাডার নান্নু বাহিনীর প্রধান ভুট্টু মাঝি, হারুন মাঝি, রহিম মাঝি, রুহুল আমিন, শামিম, মহিউদ্দিন, বাগন আলী, লোকমান, কবির, রহিম ও বর্তমান ইউপি সদস্য ফারুক দৌলত।

তারা আরো বলেন, মদনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ.কে.এম নান্নুর নির্দেশে তার ছেলে আরিফ এর নেত্রীত্বে উক্ত সন্ত্রাসীরা আমাদের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করেন। আমরা চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানাইলে তাহারা আমাদের খেয়া পারাপারে বাধা প্রদান করেন। খেয়াঘাট আসার রাস্তাটি বন্ধ করে দিয়ে রাস্তার উপরে গাছ ফেলে রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়। খেয়া যাত্রীদের এদিক দিয়ে আসতে বাধা প্রদান করে যাত্রীদের প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি দিচ্ছে। তারা যাত্রীদের বিরুদ্ধে এই রোড দিয়ে যাতায়াত করা যাবে না বলে নিষেধ করেন। আমরা এই সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনী দ্বারা প্রতিনিয়ত হামলার স্বীকার হই। আমরা এ চাঁদাবাজ থেকে মুক্তি চাই। ভোলার সকল প্রশাসনের কাছে এ চাঁদাবাজির উপযুক্ত শাস্তির দাবি করছি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা