1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১১:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভোলার লালমোহনে পুলিশকে মারধরের ঘটনায় মামলা, আটক-৩ ভোলায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৩ উপজেলা নির্বাচন ধলীগৌরনগর ইউপি নির্বাচনে মঞ্চ লুঙ্গী পড়া মানুষের জন্য বিশাল পথসভায় নেহাল পাটোয়ারী ভাইস চেয়ারম্যান থেকে চেয়ারম্যান হলেন ইউনুস, ভোলার ৩ উপজেলায় নির্বাচন সাতক্ষীরার ইছামতি নদীতে ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার! রাজশাহীতে পুষ্টি বিষয়ক মাল্টি সেক্টরাল সমন্বিত কর্মশালা অনুষ্ঠিত রামপালে মেধাবী অন্বেষণ কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত রামপালে গলায় ফাঁস দিয়ে যুবক যুবতীর আত্মহত্যা ধলীগৌরনগর ইউপি নির্বাচন- সুখেদুঃখে মানুষের পাশে থাকবেন সংরক্ষীত সদস্য প্রার্থী নাসিমা লালমোহন উপজেলা নির্বাচন২৪ নির্বাচিত হলে বদরপুরে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন করবো-প্রার্থী আকতার হোসেন

তজুমদ্দিনে অতর্কিত হামলায় প্রাক্তন মেম্বারসহ ১৫ জন আহত

নিবার্হী সম্পাদক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৮৯ বার পঠিত
স্টাফ রিপোর্টার (ভোলা) ।। ভোলার তজুমদ্দিনে বাড়ির চলাচলের পথ আটকানোকে কেন্দ্র করে সালিশের উপস্থিতিতে অতর্কিত হামলা করে প্রাক্তন মেম্বারসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে গুরতর আহত ৯ জনকে তজুমদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত কামাল দর্জি জানান, চাঁদপুর ইউনিয়নের
কেয়ামূল্যাহ সাকিনের ৯ নং ওয়ার্ডের দর্জি বাড়ির জাকির ও তার পিতা খোরশেদ বাড়ির চলাচলের পথে বাঁশ ও জাল দিয়ে বেড়া দিয়ে পথ আটকায়। এঘটনা বাড়ির লোকেরা চাঁদপুর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ কিরণের কাছে অভিযোগ করেন।
বুধবার (২৬ এপ্রিল) সন্ধ্যয় পূর্বে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী  চেয়ারম্যান ঘটনাস্থলে আসার অপেক্ষা করছেন লোকজন। এসময় ওই ওয়ার্ডে মেম্বার মোখলেস ও একই বাড়ির প্রাক্তন মেম্বার হেলাল দর্জি  ঘটনাস্থল দেখতে যায়। সুযোগ বুজে পূর্বথেকে ওৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষ জাকির ও বহিরাগত শাহ আলম শরীফের নেতৃত্বে সালিশ বৈঠক আহবানকারীদের উপর দা বটি ও লোহার রড নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়।
হামলায় রক্তাক্ত যখম হয়, সাবেক মেম্বার হেলাল দর্জি, কামাল দর্জি, সুমন দর্জি,  নাজিম দর্জি, শরীফ, মিজান, রেজাউল, মোস্তাফিজসহ অন্তত ১৫ জন। এদের মধ্যে ৯ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।
চাঁদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ কিরণ বলেন, এই ঘটনা তাকে জানানো হয়েছে। তিনি সন্ধ্যায় মীমাংসার জন্য তারিখ দিয়েছেন কিন্তু এর মধ্যে প্রতিপক্ষ গ্রুপ মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। কয়েকজন আহত হয় তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করি এবং আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য ওসিকে অবহিত করি।
ডাক্তার মোঃ রোমান মোল্লা জানান, মারামারির ঘটনা ১৫ জন চিকিৎসা নিয়েছে, ৯ জন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। অধিকাংশের মাথায় জখম,হেলাল দর্জিসহ দুইজনে অবস্থা গুরতর।
থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান মুরাদ জানান, মারামারির ঘটনা চেয়ারম্যানের মাধ্যমে অবহিত হয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা