1. admin@upokulbarta.news : admin :
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
তজুমদ্দিনে সাদিয়া সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের কম্বল বিতরণ চরফ‍্যাসনে মানুষের কাটা হাত উদ্ধার করেছে পুলিশ মেঘনায় মৎস্য অফিসের অভিযানে আটককৃত মালামাল বিক্রি করার অভিযোগ আ’লীগ সরকারী দল নয়, দলের সরকার হয়ে দেশ চালাচ্ছে বলেই এত উন্নয়ন; শিল্প মন্ত্রী মোহনপুরে রনি বাহিনী অস্ত্র ঠেকিয়ে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ মঠবাড়িয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির বনভোজন সম্পন্ন ভোলার শিবপুরে পূর্ব শত্রুতার জেদ ধরে প্রতিপক্ষকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ হাঁস পালন পদ্ধতি ফকিরহাট কাকডাঙ্গা ১২তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ কক্সবাজারে তানযীমুল উম্মাহর বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

মুক্তিযোদ্ধাদের বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই- এমপি শাওন

যুগ্ম সম্পাদক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ২৮ বার পঠিত

পারভীন আক্তার, লালমোহন:
ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন বলেছেন, ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনী ডিসেম্বর মাসে পরাজয় নিশ্চিত জেনে দেশকে মেধাশূন্য করতে পরিকল্পনা করে ১৪ ডিসেম্বর বাঙালি বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছিলো। তখন তাদেরকে সহযোগিতা করেছিলো এদেশের রাজাকার, আলবদর, আল শামস বাহিনী। সেই পরাজিত শক্তি ও তাদের পেতাত্নারা এখনো দেশের বিরুদ্বে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। একাত্তর ও পঁচাত্তরের দোসরা দেশকে আবারও পিছিয়ে নেয়ার জন্য নানা ধরনের ধ্বংসাত্মক অপতৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। এদের বিরুদ্ধে সকলকে সজাগ থাকতে হবে।
বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) সকালে লালমোহন উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হলরুমে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
এমপি শাওন আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন অবিসংবাদিত নেতা। তিনি আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্যদিয়ে বাঙালি জাতিকে মুক্তিসংগ্রামের জন্য প্রস্তুত করেন। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। এরপর দেশের মানুষ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে একেকটি সৈনিক পরিণত হয়েছে। জাতির জনকের অবর্তমানে তারই কন্যা দেশনেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশকে উন্নয়ন ও অগ্রগতির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে তখনই ৭১ এর পরাজিত শক্তি আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে শুরু করেছে। তাই আমাদের শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আদর্শ অনুসরণ করে অসাম্প্রদায়িক এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনাভিত্তিক সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার জন্য শপথ নিতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকল ষড়যন্ত্রকারীদের পরাজিত করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। উন্নত, সমৃদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনামিকা নজরুল এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লালমোহন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আলম হাওলাদার, ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাসান রিমন, লালমোহন থানা অফিসার ইনচার্জ মাহাবুবুর রহমান, কৃষি কর্মকর্তা এএফএম শাহাবুদ্দিন, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম, রমাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা মাস্টার প্রমূখ।
এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার ভূমি ইমরান মাহমুদ ডালিম, নির্বাচন কর্মকর্তা আমীর খসরু গাজী, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আকতারুজ্জামান মিলন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কানিজ মার্জিয়াসহ বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
এর পূর্বে লালমোহন থানার মোড়ে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতি ফলকে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, লালমোহন পৌরসভা, লালমোহন থানা, উপজেলা পল্লীবিদ্যুৎ, উপজেলা আওয়ামী লীগও অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।vv

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা