1. admin@upokulbarta.news : admin :
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে পথসভা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী দুলাল পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে গরীব-দুখী মানুষের সুবিধা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি মোশারফ হোসেনের ভোলায় কিশোর গ্যাংয়ের হাতে হত্যার ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা মোংলায় তলা ফেটে দুর্ঘটনার কবলে কয়লা বোঝাই লাইটার লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলে ইভটিজিং বন্ধের ঘোষনা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাজাহান বেপারীর ফকিরহাটে তপন স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টে বিসমিল্লাহ ফিড মিলস লিমিটেড চ্যম্পিয়ন ফকিরহাটে চব্বিশ কেজি গাঁজা ও ৩৬০ পিস ইয়াবাসহ চার মাদক কারবারি গ্রেপ্তার স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতা কাজী মোখতারের সুস্থতার জন্য দোয়া চেয়েছেন রবিন চৌধুরী ভোলার আলোচিত মাদক কারবারি বিয়ারসহ আটক ডর্‌প ও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ওয়াশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত

ভোলায় বিএনপির ডাকা সকাল সন্ধ্যা হরতাল প্রত্যাহার করেছে

উপকূল বার্তা ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২
  • ১৩৩ বার পঠিত

আশিকুর রহমান শান্তঃ

ভোলায় বিএনপির ডাকা সকাল সন্ধ্যা হরতাল আধা বেলা পালন করার পর প্রত্যাহার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগষ্ট) দুপুরে ভোলা জেলা বিএনপির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে হরতাল প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় জানান, ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলম ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা রহিমের মৃত্যুর ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছিল বিএনপি। জনগণ বিএনপির হরতাল সমর্থন করে সফল করেছেন। জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে বিএনপি হরতাল প্রত্যাহার করছে।

সকাল থেকেই শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করে।
বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন ছিল। সদরের ঔষধের দোকান ব্যতিত অন্য সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ ছিল। শহরের কিছু পয়েন্টে মাঝে মাঝে সীমিত আকারে যানবাহন চলাচল করেছে । এদিন হরতালের সমর্থনে বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বাংলাস্কুল মোড় পর্যন্ত মিছিল করতে দেখা যায়। এছাড়াও দলের অনেক নেতা কর্মীদের ভোলা সদর রোডের কালীনাথ বাজার এলাকায় দলীয় কর্যালয়ের সামনে অবস্থান নিতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ৩১ জুলাই বিক্ষোভ সমাবেশ করে ভোলা জেলা বিএনপি। সমাবেশ চলাকালে পুলিশ ও বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় গুলিতে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম নিহত হন। এ ঘটনায় বিএনপির আরও বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। আহতদের মধ্যে নুরে আলমও ছিলেন। বুধবার (৩ আগস্ট) বিকেলে তিনি মারা যান। ৩১ জুলাই বিএনপি ও পুলিশের সংঘর্ষে ভোলা জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলম ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুর রহিমের হত্যার বিচার চেয়ে বৃহস্পতিবার শহরে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ঘোষণা করেছিল ভোলা জেলা বিএনপি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা