1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ডর্‌প ও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ওয়াশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত বন্দরে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে নেটওয়ার্কিং সভা অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় এক শিক্ষকসহ ১৭ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার ব্যাংকে জমি বন্ধক রেখে ঋন, বন্ধকী জমি বিক্রয়ে গ্রাহক ও ম্যানেজারের প্রতারনা চরফ্যাশন উপজেলা যুব রেড ক্রিসেন্ট কমিটি গঠন যৌন হয়রানি করে প্রধান শিক্ষক জেলে বরখাস্ত করেনি সভাপতি নেতা মুজিব -আঃ সামাদ ভোলায় নারী নেটওয়ার্কিং কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে মিনি ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে কৃষি ব্যাংকে গ্রাহক সেবা উন্নয়নে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

কুয়াকাটায় বাস শ্রমিকদের হামলায় নারীপর্যটক সহ আহত ৩

জেলা প্রতিনিধি,পটুয়াখালী
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২
  • ২১৭ বার পঠিত

গোপাল হালদার,পটুয়াখালীঃ

কুয়াকাটায় বাস শ্রমিকদের হামলায় ৩ পর্যটক আহত হন। এসময় স্বর্ণালংকার কেড়ে নেওয়ার পাশাপাশি ভিডিও করার অপরাধে পর্যটকের মোবাইলও ভেঙ্গে ফেলে তারা।

জানা যায়, নরসিংদীর বাবুর হাট থেকে আসা রুবেল নামের এক ব্যবসায়ী তার পরিবারের আট সদস্যকে নিয়ে বরিশাল থেকে বাসে কুয়াকাটায় আসেন। পথিমধ্যে বাসের ভেতর দাঁড়িয়ে থাকা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাসের কর্মীরা রুবেলের পাশাপাশি তার পরিবারের নারী সদস্যদের ওপর হামলা করেন। হামলার শিকার রুবেল জানান, তারা পরিবার নিয়ে ৮ জন বরিশাল থেকে কুয়াকাটার উদ্দেশ্যে ‘ছন্দা’ নামের (পটুয়াখালী-ব-৩১-০০৪৫) বাসে বেলা ১১টার দিকে ওঠেন।

পথিমধ্যে রুবেলের সঙ্গে থাকা তার শিশু সন্তান অসুস্থ হয়ে পড়লে তার নির্ধারিত সিটে ওই শিশুকে শুইয়ে রেখে নিজে দাঁড়িয়ে থাকেন। এসময় বাসের কন্ডাক্টর এসে দাঁড়িয়ে থাকলে একজনের বাড়তি ভাড়া গুণতে হবে বলে ঝগড়া শুরু করেন। এ ঘটনার কিছু অংশ ভিডিও করেন রুবেল এবং পাশের সিটে বসা পর্যটক লক্ষ্মীপুর থেকে কুয়াকাটা ভ্রমণে আসা ওই বাসের যাত্রী রিপন মাহমুদ। কন্ডাক্টর মোবাইল ফোনে ভিডিও করায় হুমকি দিয়ে চুপ থাকেন। বিকেলে বাসটি কুয়াকাটায় এসে থামতেই বাস শ্রমিকরা সংঘবদ্ধভাবে পর্যটক পরিবারটির ওপর হামলে পড়ে।

ভিডিও করার অপরাধে মারধর করা হয় পর্যটক রিপন মাহমুদকেও। রুবেল আরো জানান, তাকে মারধর করে স্বর্ণের চেন ছিড়ে নিয়ে গেছে শ্রমিকরা। মোবাইল ভেঙে ফেলা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে মহিপুর থানার এসআই মোজাম্মেল গিয়ে বাসের চালক মো. কামাল ও সুপারভাইজার জামালসহ ওই পর্যটকদের থানায় ডেকে নেয়। বাসচালক কামাল হামলার বিষয় অস্বীকার করে বলেন, ‘একটু কথা কাটাকাটি হয়েছে।’ মহিপুর থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পর্যটক পরিবারটি লিখিত অভিযোগ দিতে অস্বীকার করায় আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া যায়নি, তবে আলোচনা করে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা