1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে সাংবাদিকের উপরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন। লালমোহনে লিজা নামের এক কিশোরী নববধূ আত্মহত্যা বোরাহানউদ্দীনে বাংলাদেশ ক্যারিয়ার অলিম্পিয়াডের ভোলা জেলা মিটিং সম্পন্ন। আবহাওয়া পরিবর্তনে পিছিয়েছে আমন ধানের চাষ, ক্ষতির শঙ্কায় চরফ্যাসনের কৃষকরা চরফ্যাসনের গোলদার হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কোভিড-১৯ টিকা নিন সুরক্ষিত থাকুন বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠিত ❝টাকা তোমার ঠিকই, কিন্তু সম্পদ সমাজের❞ মঠবাড়িয়ায় পরকিয়ার বলী হয়ে স্ত্রী কে খুন,স্বামী ও স্কুল শিক্ষিকা গ্রেফতার দেশে ফিরেই ঢাকায় হাসপাতালে অসুস্থ রোগীদেরকে দেখতে গেলেন এমপি শাওন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে শিশুর সহায়ক যেসব খাবার লাল শাক রক্তশূন্যতা কমায়

মধ্য প্রাচ্যের সাথে মিল রেখে পটুয়াখালীর ২০ গ্রামে ঈদুল আযহা পালন

উপজেলঅ প্রতিনিধি,পটুয়াখালী
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৯ জুলাই, ২০২২
  • ৪৩ বার পঠিত

গোপাল হালদার,পটুয়াখালী:

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আজ শনিবার পটুয়াখালীর ২২ গ্রামের পাঁচ হাজারের বেশি পরিবার পবিত্র ঈদুল ফিতর উদ্‌যাপন করছে। এসব গ্রামে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রতিবছরই এই গ্রামগুলো এভাবে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল আযহা উদযাপন করছেন। সকাল নয়টায় পটুয়াখালীর সদর উপজেলার বদরপুর গ্রামের বদরপুর দরবার শরিফ জামে মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল থেকেই নতুন জামাকাপড় পরে শিশু-কিশোরসহ সবাই ঈদের নামাজ আদায় করতে মসজিদে সমবেত হতে থাকেন। বদরপুর দরবার শরিফে ঈদের জামাতের ইমামতি করেছেন দরবার শরিফের ইমাম মাওলানা শফিকুল ইসলাম গনি। নামাজ শেষে দেশ ও জাতি এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

বদরপুর দরবার শরিফের পরিচালক মোহাম্মদ নাজমুস সায়াদাত আখন্দ জানান, এ বছরও জেলার সদর উপজেলার বদরপুর, ছোট বিঘাই; গলাচিপা উপজেলার সেনের হাওলা, পশুরীবুনিয়া, নিজ হাওলা, কানকুনিপাড়া; বাউফল উপজেলার মদনপুরা, শাপলাখালী, বগা, ধাউরাভাঙ্গা, সুরদী, সাবুপুরা, আমিরাবাদ এবং কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া, নিশানবাড়িয়া, মরিচবুনিয়া, উত্তর লালুয়া, মাঝিবাড়ি, টিয়াখালীর ইটবাড়িয়া, পৌরশহরের নাইয়াপট্টি, বাদুরতলী, মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের সাফাখালী—এই ২২ গ্রামের পাঁচ হাজারের বেশি পরিবার ঈদ উদ্‌যাপন করছে।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, এসব এলাকার মুসল্লিরা বদরপুর দরবার শরিফ, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া এবং চট্টগ্রামের পটিয়ার এলাহাবাদ পীরের অনুসারী। ১৯২৮ সাল থেকে এসব এলাকায় প্রতিবছর আগাম রোজা, ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা উদ্‌যাপন করা হয়। প্রতিবছরের মতো এবারও সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে গ্রামবাসী নামাজ শেষে তারা পশু কুরবানি করেন।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা