1. admin@upokulbarta.news : admin :
রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু না হলে আমরা বাংলার ভূ-খণ্ড দেখতাম না-এমপি শাওন ধামগড় ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির ৯ নং ওয়ার্ড পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা শেখ হাসিনা ক্ষুধা ও দারিদ্র্মুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছেন- এমপি শাওন বরগুনা জেলার আমতলী থানা হতে র‌্যাবের হাতে ০১(এক)জন ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রেফতার। খুলনায় ‘উন্নয়নের সরণিতে পদ্মা সেতু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শিক্ষিত জাতি গঠনে শিক্ষক সমাজের দায়িত্ব সর্বাধিক। ৭৫’ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর খুনিরাই আবার ষড়যন্ত্রে নেমেছে- এমপি শাওন পটুয়াখালীতে সাংবাদিকের উপরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন। লালমোহনে লিজা নামের এক কিশোরী নববধূ আত্মহত্যা বোরাহানউদ্দীনে বাংলাদেশ ক্যারিয়ার অলিম্পিয়াডের ভোলা জেলা মিটিং সম্পন্ন।

আজকের দিনটি বাঙ্গালির ঈদের দিন

সহকারী সম্পাদকঃ
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৫ জুন, ২০২২
  • ৩৯ বার পঠিত

অতিথি লেখকঃ

দূরের ঐ সড়কবাতি বলে দিচ্ছে, উত্তাল পদ্মার দুই প্রান্তের দূরত্ব ঘুচলো তবে ! যত ভাবেই প্রকাশিত হোক আমাদের আবেগ তবু যেনো কম হয়ে যায় ! ইট , বালু,রড, সিমেন্টের জোড়াতে তৈরী এই সেতু টা কে প্রাণহীন ভাবতে পারছিনা । ইটস্ সেল্ফ এটা একটা ইমোশন । কত মানুষ তাদের সংগ্রাম আর কষ্টের দিনগুলির সমাপ্তির অপেক্ষায় ! অনেক স্বপ্ন ও ইচ্ছের বাস্তবায়ন হবে আমাদের ।

এইতো কদিন আগে, কোভিডের লক ডাউনের সময়ে বাবা স্ট্রক করেন । লঞ্চ বন্ধ থাকায় বাবার সময়মত চিকিৎসা হয়নি । ব্যক্তিগত গল্পগুলো আমাদের সবারি এক ,আমরা যারা দক্ষিণের মানুষ ।যেখানে সুখকর স্মৃতির থেকে দুঃখের কাতরাতই যেনো বেশী। ভাবতেই ভালো লাগছে একটা প্রজন্ম কষ্টে গেলেও আগামী দিনগুলো কিছু সুন্দর স্মৃতি তৈরী করবে ইনশাল্লাহ্। যা কিনা একজন চৌকস ,সাহসী প্রধানমন্ত্রী না থাকলে সম্ভব হয়তো হতো না। শুধুমাত্র ,শুধু এই সাহসী পদক্ষেপের জন্য হলেও বজ্ঞবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা কে , এই এক লক্ষ সাতচল্লিশ হাজার পাচঁশ সত্তোর বর্গ কিলোমিটারের ১৬ কোটির ও অধিক জনগোষ্ঠির ,দল মত নির্বিশেষে ,অরাজনৈতিক ভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা উচিত বলে আমি মনে করছি।

পদ্মা সেতু আওয়ামী লীগের সরকার বাস্তবায়ন করেছে । শুধু মাত্র এই কারনেই যারা বিরোধিতা করেছেন ,করে যাচ্ছেন এতদিন যাবত তারা রাজনীতি কেনো করেন আমার জ্ঞানে আসেনা । আমরা দিনে দিনে এত বেশী রাজনীতিকরণ করে ফেলতেছি যেটা একটা রাষ্ট্রের জনগণের জন্য সত্যিই বিব্রতকর ।

আপনারা যেভাবেই হোক পদ্মার ঐ পাড়ে যান দেখে আসুন এই জনপদের সাধারণ মানুষের অশ্রুধারার হাসি মাখা মুখ ! কি স্বস্তি আর শান্তির ! আমরা যারা ঢাকায় পড়শোনা করতে আসি কত ঈদ চলে যায় বাড়ি ফেরা হয়না আমাদের । দীর্ঘ ১৫ ঘন্টার জার্নি করতে হবে এটা ভেবে ! আমাদের বাবা মা কুরবানীর গোশত্ নিয়ে খেতে বসে আর কাদঁবেনা ,আমরা বাড়ি ফিরবো স্বস্তিতে নিরাপদে ।নদীতে তুফান হবে এই ভেবে মায়ের নির্ঘুম রাতের অবসান হতে যাচ্ছে এইসব কতকিছু ভেবে এই রাত টাকে মনে হচ্ছে আমার ঈদের আগের দিনের চাদঁ রাত ! আজকের দিনটাকে আমার ঈদের দিন-ই মনে হচ্ছে। ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। লেখকঃ ফাতেমা তুজ জোহরা মীম শিক্ষার্থী।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা