1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন শিক্ষার মানোন্নয়ন করতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ সেলিম নারীর গুণ – আঃ সামাদ দৌলতখানে যুব রেড ক্রিসেন্টে দলনেতা মাশরাফি উপ-নেতা ইমতিয়াজ ও রহিমা মোংলায় ৫ শতাধিক চক্ষু রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের জনসচেতনতা ও বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান দখল-দূষণে অস্তিত্ব সংকটে ঠাকুরানী খাল পরিচ্ছন্ন অভিযানে পৌর মেয়র আ. রহমান জনপ্রিয়তার শীর্ষে ও প্রচারণায় এগিয়ে সাবেক মেয়র ডাঃ শফিক ফকিরহাটে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় ৬ বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে সিলগালা আমি আপনাদের ভালোবাসার কাছে ঋণী- কেসিসি মেয়র আ: খালেক

স্বল্পপুঁজিতে অনলাইন ব্যবসা শুরু করে সফল উদ্যোক্তা হয়েছেন চরফ্যাসনের কন্যা জাফরিন হোসাইন

রেডিও মেঘনা,চরফ্যাসন।
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ, ২০২২
  • ১৪৭ বার পঠিত
প্রতিবদনে সুরভী ও অধরাঃ
স্বল্পপুঁজি নিয়ে অনলাইনে ব্যবসা শুরু করে একজন সফল উদ্যোক্তা হয়েছেন চরফ্যাসনেরই কণ্যা এবং রাজধানীর বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরম্যাশন সাইন্স বিষয়ের অর্নাস ৩য় বর্ষে পড়ুয়া শিক্ষার্থী জাফরিন হোসাইন। নিজের পায়ে দাড়ানোর জন্য ফ্যাশনের কথা মাথায় রেখে ডিজাইনিংএ যোগ করেছে কিছু ফিউশন। প্রথম দিকে অনলাইনকে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হলেও বর্তমানে মাধ্যমটি হয়ে উঠেছে ব্যবসায়ের অন্যতম হাতিয়ার।
চরফ্যাসন কর্তারহাট এলাকার সফল নারী উদ্যোগক্তা ও ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থী জাফরিন হোসাইন বলেন, অন্যকারো জীবনের গল্প শুনে নিজেকে পরিবর্তন না করে নিজেকে পরির্বতন করার জন্য নিজের কোনো গল্প পড়তে হবে, যা তাকে পরিবর্তন করবে। শুরুটা যে সহজ হয়েছে,তা কিন্তু নয়। শুরুতে পুঁজির সংকট, করোনার লগডাউনসহ বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয়েছে। বর্তমান সময়ে মানুষ অনলাইন ব্যবসায়ের উপর অনেক নির্ভশীল।তারা অনলাইনে কেনাকাটা করতে পছন্দ করেন তাই অনলাইন ব্যবসাটা বেছে নিয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে লেখাপড়া বন্ধ থাকায় অবসর সময়কেই কাজে লাগিয়ে অর্থ উপার্জনের হাতিয়ার হিসেবে এবং ফ্যাশন ডিজাইনাইর হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে ২০২১ সালের জুন মাস থেকে অনলাইন ব্যবসা শুরু করে এখন তিনি সফল।
তিনি আরো বলেন, প্রথমে নিজের জমানো টাকায়,পরিবার ও বন্ধুদের কাছ থেকে ধারদেনা করে ১৫,০০০ টাকা সংগ্রহ করেন এরপর সেই টাকা দিয়ে বিভিন্ন শপ থেকে ডিসকাউন্ট মূল্যে বিভিন্ন ধরনের জরজেট কাপড় সংগ্রহ করে নিজের ডিজাইনে পোশাক তৈরী করতে শুরু করে।পরবর্তী সময়ে সেসব পণ্য তার ফেসবুক পেইজ পোস্ট দেওয়ায় এতে ভোক্তার ব্যাপক সাড়া পায়। এরপর অনলাইনের সাহায্যে সামান্য লাভে বিক্রি করে মাত্র ১ বছরের মধ্যেই নিজের হাত খরচের টাকা তো হচ্ছেই সেই সাথে তার এখন প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা পুজিঁ রয়েছে। তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিজের ডিজাইন করা তৈরী বিভিন্ন পোশাক দেশ বিদেশে অনলাইনে বিক্রির মাধ্যমে খ্যাতি অর্জন করবে।
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা