1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:৫১ অপরাহ্ন

ভোলায় ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মাঝে ১৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করল কোস্ট ফাউন্ডেশন

COAST Foundation
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪
  • ১০৪ বার পঠিত

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি,কোস্ট ফাউন্ডেশন, ১৫ জুন ২০২৪

ভোলা: ১৫ জুন ২০২৪
কোস্ট ফাউন্ডেশন আজ ১৫ জুন ২০২৪ ভোলায় তিনটি ইউনিয়নে ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারের মাঝে মোবাইল ব্যাংককিং এর মাধ্যমে ৬০০০ টাকা করে সহায়তা করে। কোস্ট ফাউন্ডেশন স্টাট ফান্ড বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় ‘‘Emergency Response of cyclone Remal Project’’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। উল্লেখ্য যে, গত ২৬ মে ২০২৪ তারিখে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানে শক্তিশালী ঘুর্ণিঝড় রিমেল। ভোলা জেলায় ২৪৬৫ পরিবারের ঘর সম্পূর্ণভাবে বিধস্ত হয়। স্টাট ফান্ড বাংলাদেশ দুর্যোগকালীন সময়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে জরুরি সাড়াদান করে থাকে।

আজ এই প্রকল্পটি আওতাধীন ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নে ৮৫ পরিবার, লালমোহন উপজেলার ধলীগৌর নগর ইউনিয়নে ১০২ পরিবার এবং ভোলা সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নে ৬৩ পরিবারকে মোট ২৫০ মোবাইল ব্যাংককিং এর মাধ্যমে ৬০০০ টাকা করে প্রদান করা হয়।


এইসময়ে উপস্থিত ভোলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা কামাল  উপস্থিতে  ঘুর্ণিঝড় রিমেলে ক্ষতিপ্রস্থদের ৬৩ জনের বর্তমানে করনীয় বিষয়ে আলোচনা করেন তিনি বলেন, কোস্ট ফাউন্ডেশন মানুষের জন্য কাজ করে যে কোন দুর্যোগে প্রতিষ্ঠানটি সহযোগিতা করেন । কোস্ট ফাউন্ডেশন স্টার্ট ফান্ডের সহযোগিতায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়ে, এজন্য ভেদুরিয়া ইউনিয়নের পক্ষথেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দিন হাওলাদার। তিনি বলেন, গত বন্যায় জাহানপুর ইউনিয়নে বেড়িবাঁধের বাইরের অনেক পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই সহযোগিতা তাদের দূর্যোগ কাটিয়ে উঠতে সহায়তা করবে।
আরো উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব মাকসুদুর রহমান হাওলাদার, চেয়ারম্যান ধলীগৌর নগর ইউনিয়ন। তিনি বলেন, কোস্ট দূর্যোগে আগেও ভালো কাজ করেছেন। এবারও স্টার্ট ফান্ডের সহযোগিতায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়ে, এজন্য আমি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। তিনি এই কাজে কোস্টকে সকল ধরণের সহযোগিতা বজায় রাখবেন।
জাহানপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের লাইজু বেগম জানান, ঘুর্ণিঝড়ে তার ঘর পুরোপুরি ভেঙ্গে যায়। তিনি এখনও কষ্ট করছেন। এই সহযোগিতা দিয়ে তিনি খাবার, ঘর মেরামতসহ প্রয়োজনীয় কাজে ব্যয় করবেন।

ধলীগৌর নগর উপজেলার ঘূর্ণীঝড় রিমালের ক্ষতিগ্রস্ত নুরুল ইসলাম নিজ মুঠোফোনে যখনই নগদের মাধ্যমে ৬০০০ টাকা পাওয়ার পর তার অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, তিনদিন ধরে আশ্রয় কেন্দ্রে ছিলেন। বাড়িতে এসে দেখেন থাকার মতো অবস্থা নেই। ঝঁড়ে ঘরের চাল, মাটি সব ভাসিয়ে নিয়ে যায়। কয়েকদিন কাটাতে হয় মানুষের বাড়িতে। তিনি বলেন, ঈদের আগে টাকা পেয়ে বেশ আনন্দ লাগছে , এবার ঘরটা ঠিক করবেন।
উপকারভোগী শাহানুর বেগম বলেন, বাতাসে ঘর ভেঙ্গে গেছে। তার পরিবার এখনো ভাঙ্গা ঘরে বসবাস করছে। এই টাকা দিয়ে ঘর মেরামত করবেন বলে জানান। নগদ অর্থ হিসেবে ৬০০০ টাকা পেয়ে খুশি শাহানুর বেগম।


নরুজ্জামান (৮০) ধলীগৌর নগর ইউনিয়নের একটি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার। তিনি একজন বয়স্ক ব্যক্তি এবং একজন শ্রবণ প্রতিবন্ধি, কানে শুনতে পাননা। ঘুর্ণিঝঁড়ে পুরোপুরি ভেঙ্গে যাওয়া ঘর এখনও মেরামত করতে পারেননি। মোবাইলে ৬০০০ টাকার বার্তা আসার পরেরই তার চোখেমুখে আনন্দের হাসি।
সরকারি ছুটির মাঝেও কোস্ট ফাউন্ডেশন তিনটি ইউনিয়নে বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করেছে এবং চরফ্যাশন উপজেলার নজরুল নগর ইউনিয়নে আগামীকাল ৯৭ পরিবারের মাঝে এই সহযোগিতা প্রদান করা হবে। সময় উপস্থিত ছিলেন, কোস্ট ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা রাশিদা বেগম, মো: ইউনুচ, সোহেল মাহমুদ, খোকন চন্দ্র শীল, মো: ফজলু হক, মিজানুর রহমান, মো: শাহিনুর ইসলাম, মো: তরিকুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা