1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কেরানীগঞ্জে আইন-শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনার কল্যাণে তলাবিহীন ঝুড়ির দেশ থেকে আজকে সম্ভাবনাময় বাংলাদেশ হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কপ ২৭ আলোচ্যসূচিতে ক্ষয়-ক্ষতি প্রসঙ্গ অন্তর্ভুক্ত করার জন্য বাংলাদেশকে জোর অবস্থান নেওয়ার দাবি নাগরিক সমাজের Civil Societies demanded strong government position to include Loss & Damage in CoP 27 agendas সিদ্ধিরগঞ্জে মাদক ও কিশোর অপরাধকে না বললো ৪০০ শিক্ষার্থী কেরানীগঞ্জে বাস্তবায়ন হচ্ছে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনের কার্যক্রম মোংলায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ, থানায় মামলা মনপুরায় জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব’র সাথে গনমান্য ব্যক্তিবর্গের মতবিনিময় সভা ভোলা জেলা যুবলীগ ও অন্যান্য আওয়ামী সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত শেখ হাসিনা বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে, উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে-এমপি শাওন

“চরের মানুষের স্বাস্থ্য সেবার অধিকরঃঅভিজ্ঞতা এবং করণীয়” শীর্ষক এক আঞ্চলিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২২
  • ১১৩ বার পঠিত

পিএম রায়হান বাদলঃ

ন্যাশনাল চার অ্যালায়েন্স, সমুন্নয় ও দশমিনা চর অ্যালায়েন্সের উদ্যোগে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় অদ্য ১২ জানুয়ারি ২০২২ দশমিনা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে “চরের মানুষের স্বাস্হ্যসেবার অধিকরঃ অভিজ্ঞতা এবং করণীয়” শীর্ষক এক আঞ্চলিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

সংলাপে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আবদুল কাইয়ুম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন দশমিনা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানগন মোঃ নাসির উদ্দিন পালোয়ান ও বেগম শামছুন্নাহার খান ডলি। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা  ডাঃ মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান । দশমিনা চর অ্যালায়েন্সের আহবায়ক পিএম রায়হান বাদল অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন।

অনুষ্ঠানে মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সমুন্নয়ের সিনিয়র রিসার্চ অ্যাসোসিয়েটড. মাহবুব হাসান। তিনি বলেন, দেশের দুর্গম চরাঞ্চল যে বরাবরই উন্নয়ন বঞ্চিত এটি নতুন করে বলা অপ্রয়োজন। চরে প্রায় ১ কোটি মানুষের বসবাস এরা স্বাস্থ্যসেবা থেকেও বঞ্চিত। যাতায়াতের সুবিধাদি কম এবং তুলনামূলক খরচ বেশি। তাছাড়া তাদের নিয়ে পরিকল্পনারও বেশ অভাব রয়েছে। চরের নারী ও শিশু স্বাস্হ্যসেবা থেকে বঞ্চিত। তারা এখনও অসচেতন ঝাঁর-ফুকের উপর নির্ভরশীল।

এই কভিড-১৯ সময়ে টিকা গ্রহণের হর কম এবং তাদের টিকা গ্রহণে খরচ তুলনামূলকভাবে বেশি। তাই তাদর জন্য আলাদাভাবে চিন্তা করতে হবে। চরের মানুষের কাছে স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে যেতে হবে। প্রয়োজনে চরফার্মাসী করা যেতে পারে। চরে৷ টিকার সচেতনতা বাড়াতে হবে এবং কভিড-১৯ টিকা দেয়ার আলাদা ব্যবস্হা করতে হবে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইউএনও মহোদয় বলেব, সরকার চরের মাুষের জন্য অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে। দশমিনায় চরগুলোতে স্হানীয়ভাবে টিকা দেয়ার ব্যবস্হা করা হয়েছে। তবে এগুলো পর্যাপ্ত নয়, আরো উদ্যোগ নিতে হবে। কারণ আবার করোনা বাড়ছে। টিকার কোন বিকল্প নেই। তার সাথে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূক, এ বিষয়ে সরকারের নির্দেশনা রয়েছে।

আগামীতে পটুয়াখালীতে ভূমি সার্ভে হবে এটা হলে চরের ভূমি বিষয়ে অনেক সমস্যার সমাধান হবে। সভপতির বক্তব্যে ডাঃ মো মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ইপিআই সরকারের সবচেয়ে সফল  প্রোগ্রাম। চরে এক্ষেত্রে কোন সমস্যা নেই। এক্ষেত্রে কোন ভুল বুঝাবুঝির সুযোগ নেই। স্হানী জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে ফার্মেসীর ব্যবস্হা করা যেতে পারে। জটিল সেবাসমূহ অনলাইনে দেয়া ঠিক হবে না। তবে প্রথমিক সেবা আপনারা নিতে পারেন। আর নৌ এ্যাম্বুলেন্স আছে। কিন্তু কোন খরচের নীতিমালা না থাকায় ব্যবহার করতে পারছি না। এতে ঘন্টা ২০ লিটার তেল খরচ হয়। তাতে ৮০০০/= টাকা খরচ হয়। তাই এটা ব্যবহার করা যাচ্ছে না। নিজের টাকা খরচ করে মাঝেমাঝে ব্যবহার করা হয়।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা