1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ডর্‌প ও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ওয়াশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত বন্দরে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে নেটওয়ার্কিং সভা অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় এক শিক্ষকসহ ১৭ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার ব্যাংকে জমি বন্ধক রেখে ঋন, বন্ধকী জমি বিক্রয়ে গ্রাহক ও ম্যানেজারের প্রতারনা চরফ্যাশন উপজেলা যুব রেড ক্রিসেন্ট কমিটি গঠন যৌন হয়রানি করে প্রধান শিক্ষক জেলে বরখাস্ত করেনি সভাপতি নেতা মুজিব -আঃ সামাদ ভোলায় নারী নেটওয়ার্কিং কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে মিনি ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে কৃষি ব্যাংকে গ্রাহক সেবা উন্নয়নে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ভোলায় ঝুমুর নামের এক নারীর অসামাজিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীদের মানববন্ধন !!

আশিকুর রহমান শান্ত
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৫ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৩৮ বার পঠিত

ভোলার আলীনগরের “ঝুমুর বেগম”নামের প্রবাস ফেরত এক নারীর অসামাজিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদসভা ও মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগীরা শুক্রবার (৫ জানুয়ারী) ভোলা প্রেসক্লাবের সামনে ভুক্তভোগী বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ এই মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধনে অংশ নেয়া ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষের বলেন, ভোলা শহরতলীর আলীনগরে এ নারীর অত্যাচারে সাধারন মানুষ ও যুবসমাজ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। কারনে-অকারনে নিরীহ মানুষের উপর হামলা ও মিথ্যে মামলা দিয়ে এই নারী ব্যাক্তিগত ভাবে আর্থিক লাভবান হতে সবসময় নানা প্রকার ফন্দিফিকির আটেন। বিভিন্ন এনজিও এবং গ্রাম্য সমিতি গুলো হতে ছলাকলা করে মোটাদাগের লোন নিয়ে তা আর ফেরত না দিয়ে উল্টো এনজিওকর্মীদের উপর হামলা চালান। তাছাড়া বিভিন্ন যুবকদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে তাদের ব্ল্যাক মেইলিং করে মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে সর্বোস্ব লুটে নেয়ার মত চাঞ্চল্যকর বহু ঘটনা ওই এলাকায় আলোড়ন তুলেছে। মানববন্ধনে এলাকার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ এ নারীর বিরুদ্ধে প্রতারনা ও অসামাজিক কার্যকলাপের বহু ঘটনার ফিরিস্তি গণমাধ্যমের কাছে তুলে ধরেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আলীনগর ইউনিয়নের সাচিয়া নামক গ্রামের বাসিন্দা মৃত-আব্দুর রব মিয়ার কণ্যা ঝুমুর বেগমের পরিবার অতি দরিদ্র হওয়ায় ছোটবেলায় মেয়েটিকে স্থানীয় অপর বাসিন্দা মিলন ওরফে হেজু লালন-পালনের জন্য নিয়ে যান। একপর্যায়ে ওই পরিবারে বড় হয়ে ঝুুমুর মিলন মিয়ার সন্তান হিসেবেই পরিচিতি লাভ করেন। মিলন ওরফে হেজু মিয়ার ভাষ্যমতে,পালক মেয়ে ঝুমুরকে বিয়ে দেয়ার পর ঝুমুর নিজেই সাবলম্বী হতে বিদেশে (উমান) পাড়ি জমান। স্থানীয়দের মতে,কয়েকবছর বিদেশে বেশ ভালোই আয়-রোজগার করে দেশে ফিরে আসেন ঝুমুর। কিন্তু দেশে আসার পর মতলববাজ এই নারী গ্রামের যুবসমাজ ও সহজ-সরল সাধারন মানুষকে টার্গেট করেন। এলাকার মহিউদ্দিন নামের এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন, এই নারী আমার পরিবারের ভিতর বিবাদ বাধিয়ে আমার একমাত্র রোজগারের মাধ্যম দোকানটিতে হামলা,ভাংচুর ও লুটতরাজ চালিয়েছেন। অপর যুবক চুন্নু মিয়া জানান,তার উপর হামলা করে তার টাকা পয়সা লুন্ঠনসহ মিথ্যে-সাজানো মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করছেন, ভয়ঙ্কর এ নারী ঝুমুর বেগম। ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আমিরুন নেছা গণমাধ্যমকে জানান, সামান্য ঘটনার ধোয়া তুলে ঝুমুর তার সঙ্গীয় কিছু বখাটে ব্যাক্তিকে সাথে নিয়ে তার পরিবারের উপর হামলা চালায়। বিগত ৩০ নভেম্বর/২০২৩ইং বেলা ১১টায় এই হামলা চালিয়ে উক্ত ঝুমুর ভিক্টিম আমিরুন নেছার ডান কান ছিড়ে রক্তাক্ত করে তার গহনা ছিনিয় নেন। কানের ওই ক্ষতস্থানে ৩টি সেলাই দেয়া হয়েছে। অপর কানের অলঙ্কারও ছিনিয়ে নিয়েছেন-দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনার পর আহত আমিরনকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই ঘটনায় স্থানীয় গণ্যমাণ্যরা সমাধান করতে না পারায় ভিক্টিম আমিরুন ওরফে আমিরুন নেছা বাদী হয়ে ঝুমুরসহ ৫ ব্যাক্তির বিরুদ্ধে গত ২০ ডিসেম্বর ভোলার সদর সিনিয়র জুডিশিয়াল বিচারিক হাকিমের আদালতে একটি মামলা রুজু করেন। (যার নাম্বার-৬০৫/২৩ইং) স্থানীয় “পদক্ষেপ” নামক এনজিও’র মাঠকর্মী মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, ঝুমুর বেগম তার সংস্থা থেকে লোন নিয়ে তা ফেরত দিচ্ছেননা। কিস্তি তুলতে গেলে ঝুমুর তাকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেন বলে জানান তিনি। শুধু তা-ই নয়, ঝুমুর বেগমের এসব বেলাল্যাপনা ও অশোভন কর্মলীলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে তার আপন “মা”বেগী বেগমও নিজের মেয়েকে আসামী করে ভোলার সিনিয়র জুডিশিয়াল বিচারিক হাকিমের আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। যা এখনো চলমান। একই এলাকার বাসিন্দা রুমা বেগম বলেন, ঝুমুর ও তার সঙ্গীয় দূর্বৃত্তরা তাকে হাত-পা বেঁধে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে লবন-মরিচ লাগিয়ে নির্মমভাবে নির্যাতন করে তার জমি হাতিয়ে নিতে স্ট্যাম্পে সাক্ষর নেয়ার চেষ্টা চালায়। মাববন্ধনে আগত ভূক্তভোগীরা এ নারীর অত্যাচারের বিভিন্ন স্থির ছবি গণমাধ্যমের সামনে প্রদর্শন করেন। ঝুমুরের এধরনের অসংখ্য কর্মকান্ডে আলী নগরবাসী এখন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন বলে তারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন। গ্রামবাসী ভয়ঙ্কর এ নারী ঝুমুরের ছোবল থেকে নিস্তার পেতে ভোলা-০১ আসনের সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ, প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন। এসব বিষয়ে অভিযুক্ত ঝুমুর বেগমের সাথে কথা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেন। বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। এব্যাপারে কথা হয়,আলীনগর ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান বাবুল মিয়ার সাথে। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন,ঝুমুর বেগমের বিরুদ্ধে আনীত বহু অভিযোগের শালিশী করেছি,এখনো করছি। তার সাথে অন্যদের মামলা-হামলা ও বিবাদসমুহ নিস্পত্তি করে এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলেও জানান এ জনপ্রতিনিধি। বর্তমানে আলেচিত এ নারী ঝুমুর বেগমের ভয়ে আলীনগরের সাচিয়া গ্রামের বাসিন্দারা এখন চরম আতঙ্ক,উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা’র মধ্যে রয়েছেন বলে মানববন্ধনে এসে জানিয়েছেন তারা ।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা