1. admin@upokulbarta.news : admin :
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে ইভটিজিং বন্ধ করবেন সালেম হাওলাদার ভোলায় সাংবাদিক মহিউদ্দিনের উপর হামলায় গণমাধ্যমে নিন্দা-প্রতিবাদের ঝড় যৌতুকের দাবিতে পুত্রবধূকে মারধরের অভিযোগ শশুর শাশুড়ির বিরুদ্ধে মাছ শিকারে ২ মাসের নিষেধাজ্ঞা শুরু মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে গুরু -আঃ সামাদ ভোলার লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন লালমোহন পশ্চিম চর উমেদ ইউপি নির্বাচন শিক্ষার মানোন্নয়ন করতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ সেলিম নারীর গুণ – আঃ সামাদ দৌলতখানে যুব রেড ক্রিসেন্টে দলনেতা মাশরাফি উপ-নেতা ইমতিয়াজ ও রহিমা মোংলায় ৫ শতাধিক চক্ষু রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

মায়ের ৩২ বছর আগে জন্ম ‘‘মেয়ের’’

জেএম.মমিন, স্টাফ রিপোর্টার ।।
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১০৮ বার পঠিত

বাস্তবে পিতা-মাতার জন্মের আগে সন্তানের জন্ম সম্ভব না হলেও জাতীয় পরিচয়পত্রে মায়ের জন্মের ৩২ আগে জন্ম গ্রহন করেছে তার মেয়ে। সরকারি খাতায় দুজনের বয়স রয়েছে এমনই। এমনকি মায়ের নাম সালেহা খাতুনের স্থলে হয়েছে ছালেমা খাতুন এমন আজব ঘটনা ঘটেছে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার সাচড়া ইউনিয়নের (০৮নং ওয়ার্ড) দেউলা শিবপুর গ্রামে। তার দেওয়া তথ্য ও জন্মনিবন্ধন সনদ অনুযায়ী দেখাযায়, মা ছালেহা খাতুনের জন্ম ১৯৫৭ সালের ২রা মার্চ আর তার মেয়ে মোসাঃ ফেরদৌস এর জন্ম ১৯৯০ সালের ২রা মার্চ কিন্তু ভোটার আইডি কার্ডে দেওয়া হয়েছে ১৯২৫ সাল। এতে মায়ের থেকে ৩২ বছরের বড় হয়ে যান মেয়ে ফেরদৌস। সে একই ইউনিয়নের চর গঙ্গাপুর গ্রামের বাসিন্দা মৃত আঃ জলিল সিকদারের মেয়ে। জাতীয় পরিচয় পত্রে এমন ভুলের কারনে বিড়ম্বনায় পরছেন ওই ভুক্তভোগী।

মোসা. ফেরদৌস জানায় ২০০৮ সালে এনআইডি কার্ডের ছবি তোলা হলে সকল ডকুমেন্টস দিয়ে আমি ছবি তুলি। পরবর্তীতে যখন এনআইডি কার্ড হাতে পাই তখন দেখি আমার মায়ের থেকে আমার বয়স ৩২ বছর বেশি। এটা সমাধানের জন্য অনেকের কাছে যাই তাতে কোনো সমাধান হয়নি। গত কয়েক মাস পূর্বে সংশোধনের জন্য অনলাইনে আবেদন করেছি এখনো ঠিক হয়নি। জাতীয় পরিচয় পত্রে ছোট খাটো ভুল স্বাভাবিক বিষয় হলেও এত বড় ভুল কোনো ভাবেই মানার যোগ্য নয় ।
ওই ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার জাকির হোসেন জানান, অনেকের ভোটার আইডিতে অনেক ধরনের ভুল রয়েছে। সমস্যা নিয়ে কেউ আসলে তাদের সমস্যা সমাধানে সর্বাতœক সহযোগীতা করি। ভোটার হালনাগাদের সময় যারা তথ্য সংগ্রহ করেছে তখন ভুল বসত এমন হতে পারে।

ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুল্যাহ মৃধা বলেন, অসাবধানতাবশত এমন ভুল। ভুক্তভোগির বিষয়টি সমাধানে সহযোগিতা করবো।

বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিসার মনজুর হোসেন খান জানান, ভুল ডাটা এন্টির জন্য এমন হতে পারে। আবেদন করা থাকলে প্রক্রিয়া শেষে সংশোধন হয়ে যাবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা