1. admin@upokulbarta.news : admin :
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ডর্‌প ও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ওয়াশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেমিনার অনুষ্ঠিত বন্দরে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে নেটওয়ার্কিং সভা অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় এক শিক্ষকসহ ১৭ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার ব্যাংকে জমি বন্ধক রেখে ঋন, বন্ধকী জমি বিক্রয়ে গ্রাহক ও ম্যানেজারের প্রতারনা চরফ্যাশন উপজেলা যুব রেড ক্রিসেন্ট কমিটি গঠন যৌন হয়রানি করে প্রধান শিক্ষক জেলে বরখাস্ত করেনি সভাপতি নেতা মুজিব -আঃ সামাদ ভোলায় নারী নেটওয়ার্কিং কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে মিনি ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে কৃষি ব্যাংকে গ্রাহক সেবা উন্নয়নে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নারী নির্যাতন মামলা করায় বাদীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

সহকারী সম্পাদক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১১৬ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার

ভোলায় নারী নির্যাতন এর মামলা করায় বাদীর বিরুদ্ধে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে বাদীর স্বামী হাসনাইন আহমেদ এর চাচাতো ভাই জাহিদ আহমেদ আকিব এর বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভোলার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের মামলার বাদী মুসফিকা নাজনীন ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির করার অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মুসফিকা নাজনীন।

ভুক্তভোগীদের ও নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার বাদী সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ নভেম্বর ভোলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এর বিচারক আনোয়ারুল হক এর কোর্টে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বাদী মুসফিকা নাজনীন তার স্বামী হাসনাইন আহমেদ কে প্রধান আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। সেই মামলা করায় আসামি পক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে বাদী ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে হয়রানি করার উদ্দেশ্যে অহেতুক মিথ্যা মামলা দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগী মুসফিকা নাজনীন অভিযোগ করে বলেন, আমাকে আমার স্বামী যৌতুকের জন্য অমানুষিক করতো। সেই নির্যাতন স‌ইতে না পেরে আদালতে একটি যৌতুক মামলা করি। সে মামলা থেকে জামিন নিয়ে আমার স্বামী হাসনাইন আহমেদ ও তার পরিবারের লোকজন আমার ওপর অমানবিক নির্যাতন করে, রাস্তায় ফেলে আমাকে মারধর করে। আমার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে আমাকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। সেই নির্যাতনের বিচার চাইতে গিয়ে আমি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নারী নির্যাতন মামলা করি। সেই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি হলে তারা আমার পরিবারকে সমাধানের জন্য প্রস্তাব দেয়। সমাধানে বসার দিন তারা গোপনে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা করেন। কেন আমিও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বানোয়াট মামলা দেওয়া হয়েছে আমি এর সঠিক বিচার দাবি করছি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা