1. admin@upokulbarta.news : admin :
  2. bangladesh@upokulbarta.news : যুগ্ম সম্পাদক : যুগ্ম সম্পাদক
  3. bholasadar@upokulbarta.news : বার্তা সম্পাদক : বার্তা সম্পাদক
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:০৯ অপরাহ্ন

বাঘার রুস্তমপুরে গড়ে উঠেছে মাদকের অভয়াশ্রম, অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

মোঃ আলাউদ্দীন মন্ডল রাজশাহী :
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৯ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৫৫ বার পঠিত

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের পূর্ব ভারতীপাড়া এলাকায় মাদক বিক্রি ও সেবনকারীর অভয়াশ্রম গড়ে উঠেছে। এমন অভিযোগ করেছেন অনেকেই। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে ধুম পড়ে মাদক বিক্রি ও সেবনে। আর এই মাদক সেবনকারীর উৎপাতে এখন অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। সরেজমিনে মাদক সেবনকারীদের বিচরণের আলামত পাওয়া যায় সেখানে।

জানা যায়, পূর্ব ভারতী পাড়া মুকুলের মোড় থেকে সাবলুর বাড়ি পর্যন্ত ফাঁকা যায়গায় রাস্তার দুই পাশের আম বাগানে চলে মাদকের বেচা কেনা। এছাড়াও বৃষ্টির সময়েও নিরাপদে মাদক সেবনের জন্য রয়েছে রাস্তার উত্তর পাশে শুকুর আলীর আম বাগানে দুই চালা টিনের ঘর। রাস্তার দক্ষিণ পাশে মকসেদ আলীর আম বাগানেও বসে মাদকের আসর। শুধু এ এলাকার লোকজনই নয় মাদকের আসরে অংশ গ্রহন করতে দুরদরান্ত থেকে ছুটে আসে মাদক সেবনকারীরা। এতে ক্ষতির মুখে পড়ছে এ এলাকার যুব সমাজ। মাদকের সাথে সম্পৃক্তরা দিন দিন জড়িয়ে পড়ছে নানা অপকর্মে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ব্যাক্তি জানান, মাদক সেবনকারীদের অত্যাচারে অতিষ্ট হওয়ার পরেও প্রভাবশালী মাদক কারবারির ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায়না কেউ। এখানে সকাল থেকে সারাদিনই কমবেশি লোকজন আসে। তবে সন্ধ্যার পরে বেশ জমে উঠে মাদকের আসর। আর মাদক ব্যাবসার সাথে জড়িত রুস্তমপুর ও কালুহাটির কয়েকজন লোক। তারা আরও জানান, এখানে শুধু এলাকার একজনই মাদক সেবন করতে আসেনা। আড়ানী রেলস্টেশন, গোচর, বাউসা, দিঘা, তেঁথুলিয়া সহ দূরদূরান্তের লোকজনও আসে মাদক সেবন করতে।

গোপন সুত্রে জানা যায়, শুকুর আলী তার আম বাগানের ঘর ভাড়ায় খাটাচ্ছে মাদক কারবারির কাছে। এখানে বিক্রি করা হয় গাঁজা, ইয়াবা ও হেরোইনের মত মারাত্নক ক্ষতিকর নেশা জাতীয় দ্রব্য। জায়গাটি শুনশান নীরব হওয়ায় নিরাপদে মাদকের জমজমাট ব্যাবসাও হয় এখানে।

মুঠোফোনে ঘর ভাড়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে শুকুর আলী শুকৌশলে বিষয়টি এড়িয়ে যান। তবে তিনি ঘরটি আম পাহারা দেওয়ার জন্য করেছেন বলে জানিয়েছেন।

ভারতী পাড়া এলাকায় মাদকের এমন অভয়াশ্রমের কারণে এক দিকে যেমন নিরাপদে সেবনকারীরা মাদক সেবন করছে। অন্যদিকে এলাকার বেশির ভাগ যুবকরা দিন দিন হিংস্র হয়ে উঠছে। যার ফলে চুরি, ছিনতাই সহ হত্যার মতো জঘণ্য কাজে লিপ্ত হচ্ছে তারা।

আড়ানী পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোশাররফ হোসেন জানান, বিশেষ এক মহলের ছত্র ছায়ায় মাদক ব্যাবসায়ীরা এলাকার যুব সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। মাদকের এই মরন ছোবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যাতে করে ৯ নং ওয়ার্ড কে মাদকমুক্ত ঘোষণা করতে পারি।

এ বিষয়ে আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী বলেন, আমি পৌরসভাকে মাদক মুক্ত করতে চাই। পৌর এলাকায় কোন রকম মাদক বেচা কেনা ও সেবন চলতে দেওয়া হবে না। তাই মাদক ব্যাবসায়ী এবং সেবনকারীদের আইনের আওতায় আনতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তিনি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা