1. admin@upokulbarta.news : admin :
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পদত্যাগ করলেন সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম পাঁচ দিন পর শুরু হলো সাতক্ষীরার ভোমরায় আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ইবিএ প্রকল্পে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ প্লাস্টিকের ভিড়ে বিলুপ্ত ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প লালমোহনে ছলিমউদ্দিন তালুকদার ফাউন্ডেশনের ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠিত শেখ হেলাল উদ্দীন সরকারি কলেজে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব উদযাপন তন্বীর প্রেমে পড়ে ঢাকার সুবর্ণা মোংলায় কুমিল্লার মহেশপুর শাহী ঈদগাহে নামাজ অনুষ্ঠিত বোরহানউদ্দিনের তিন গ্রামে ঈদুল ফিতর অনুষ্ঠিত বিধবা নারীকে ঘর করে দিলেন সমাজসেবক রাজিব হায়দার

রাজশাহীর পুঠিয়ায় প্রতারণা করে হিন্দু-মুসলিম বিয়ে

যুগ্ম সম্পাদক
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮৬ বার পঠিত

মোঃআলাউদ্দীন মন্ডল রাজশাহী ;

রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক হিন্দু যুবক প্রতারণা করে মুসলিম যুবতি মেয়েকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে। আবার বিয়ের কয়েকদিন না যেতেই ঐ হিন্দু যুবক অর্থাৎ স্বামী পালিয়ে আত্নগোপনে চলে যায়। পরে স্বামীর খোঁজে ওই মেয়ে চলে আসেন ছেলেটির বাড়িতে। আসার পর জানতে পারেন ছেলেটি হিন্দু। পরে ওই মেয়ে নিজেকে স্ত্রী দাবী করলে ছেলেটির পরিবারের লোকজন মেয়েটিকে মারধর করে। এমন ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ওই মেয়ে থানা পুলিশের আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানাগেছে।

ঘটনাটি গত ৩০ জুলাই সন্ধ্যার। অভিযুক্ত ঔ ছেলের নাম সুব্রত ঘোষ। সে উপজেলার রামজীবনপুর গ্রামের সুবল ঘোষের ছেলে। প্রতারণার শিকার যুবতির নাম সাথী খাতুন (২৪)। তিনি নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার রানীনগর গ্রামের মোজাম্মেল হোসেনের মেয়ে।

ভুক্তভোগি সাথী খাতুনের বর্ণনা অনুযায়ী তারা দুজনেই ঢাকায় একটি কোম্পানিতে চাকুরি করতো। প্রায় এক বছর আগে তাদের মধ্যে পরিচয় হয়। সুব্রত ঘোষ নিজেকে মুসলিম পরিচয় দিয়ে মেয়েটির সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলে। গত দুই মাস আগে ঢাকাতেই একটি কাজী অফিসে তারা বিয়ে করে। আর বিয়ের এক মাস না যেতেই সুব্রত ঘোষ পালিয়ে আত্নগোপনে চলে যায়। এরপর বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজাখুঁজি করে তার বাড়ির ঠিকানা সংগ্রহ করে। অবশেষে গত রোববার সন্ধ্যা পুঠিয়ায় সুব্রতর বাড়ীতে উপস্থিত হন সাথি খাতুন। এখানে আসার পর জানতে পারেন যে, সে হিন্দু। এ ঘটনা পরিবারকে জানালে ছেলেটির পরিবারের লোকজন মেয়েটিকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। এরপর গ্রামবাসীর কাছে প্রতারণার বিচার চাইতে গেলে সুব্রত ঘোষের স্বজনরা তাকে আরও খারাপ কিছু করার চেষ্টা করে। বিষয়টি টের পেয়ে মেয়েটি থানা পুলিশের আশ্রয় নেয়।

তবে এলাকাবাসী বলছে, গতকাল রোববার সন্ধ্যায় সুব্রত ঘোষ এর খোঁজে একটি মুসলিম মেয়ে আমাদের এখানে এসেছিল। পরে তাকে না পেয়ে মেয়েটি ফিরে গেছে। তবে মেয়েটি এখন কোথায় আছে তার জানা নেই। মেয়েটিকে মারধরের কথা বললে তারা বলেন, আমরা এবিষয়ে জানিনা।

পরে পুঠিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রতারণার শিকার হয়ে ৩০ জুলাই রাতে এক যুবতি মেয়ে থানায় আশ্রয় নিয়েছেন। সোমবার দুপুরে তিনি সুব্রত ঘোষ নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আমরা ওই মেয়ের পরিবারের সাথে যোগাযোগের চেস্টা করছি। পরিবরের কেউ এলে তাদের জিম্মায় মেয়েটিকে দেয়া হবে। আর অভিযোগটি তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা